২০ আগস্ট ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬

কুড়িগ্রামে দুর্ভোগে বানভাসী মানুষ

  • কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-07-22 19:55:40 BdST

bdnews24

কুড়িগ্রামে কয়েক লাখ বানভাসী মানুষ চরম দুর্ভোগে দিনযাপন করছে।

প্লাবিত এলাকায় বিশুদ্ধ পানির সঙ্কট দেখা দিয়েছে। রাস্তাঘাট, বাঁধ, ঘরবাড়ি, স্কুল-কলেজ প্লাবিত হয়েছে। ভেঙে পড়েছে পয়ঃনিষ্কাষণ ব্যবস্থা। পানিবাহিত নানা রোগব্যাধি দেখা দিচ্ছে।

সব মিলিয়ে কয়েক লাখ মানুষের জীবনযাপন দুর্বিসহ হয়ে উঠেছে।

জেলা প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে জানা যায়, বন্যায় তিনটি পৌরসভাসহ ৬০টি ইউনিয়নে ৮৯৪টি গ্রামের ২ লাখ ৩৮ হাজার ৬৭২টি পরিবার পানিবন্দি হয়েছে। পরিবার প্রতি ৪ জন হিসাবে বানভাসি মানুষের সংখ্যা দাঁড়ায় ৯ লাখ ৫৪ হাজার ৬৮৮ জন।

ফসলি জমি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৩৩ হাজার হেক্টর। এছাড়া এক হাজার ২৪৫ কিলোমিটার রাস্তা, ৪০ কিলোমিটার বাঁধ ও ৪১টি ব্রিজ/কার্লভার্ট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। নলকূপ ক্ষতিগস্ত হয়েছে ৯ হাজার ৭৩৪টি। দুই লক্ষাধিক গবাদিপশু পানিবন্দি।

বন্যার কারণে প্রাথমিক বিদ্যালয়, উচ্চ বিদ্যালয়, মাদ্রাসা ও কলেজ মিলে এক হাজার ২৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠদান কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে।

জেলা প্রশাসক মোছা. সুলতানা পারভীন বলেন, বন্যার্তদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য জেলা প্রশাসন কাজ করে যাচ্ছে।

এ পর্যন্ত জেলা প্রশাসন থেকে ৮শ’ মে.টন জিআর চাল, ১৩ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা, ৭ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার এবং ঈদুল আজহা উপলক্ষে ৬ হাজার ৪২৮ মেট্রিকটন চাল  বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া বন্যায় নিহত ১৬টি পরিবারকে ২০ হাজার টাকা করে ৩ লাখ ২০ হাজার টাকা সহায়তা দেওয়া হয় বলে তিনি জানান।

আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন ত্রাণ বিতরণ করেছে বন্যার্তদের মাঝে।


ট্যাগ:  রংপুর বিভাগ  কুড়িগ্রাম জেলা