২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬

ঈদের ছুটিতে মৌলভীবাজারে

  • বিকুল চক্রবর্তী, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-08-14 11:59:56 BdST

bdnews24

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর মৌলভীবাজারের বিভিন্ন পর্যটনকেন্দ্র ও পার্কগুলোতে ঈদের ছুটিতে লোকজনের ভিড় বেড়েছে।

লাউয়াছড়া বন, মাধবকুণ্ড জলপ্রপাত, মাধবপুর লেক, হামহাম আনন্দধারা, চা যাদুঘর, সিতেশ বাবুর বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন, কমলা রানীর দিঘী, মাইলের পর মাইল চা, আনারস ও লেবু বাগান, হাকালুকি হাওরের বিশাল জলরাশি আর গ্র্যান্ড সুলতানের মনোরম লেক ও ফুলের বাগানসহ জেলার প্রায় দেড়শত পর্যটন স্পট এখন পর্যটকদের আনাগোনায় মুখর।

কেউ বৃষ্টির জলধারা গায়ে নিয়ে বৃষ্টি বিলাসে ব্যাস্ত, কেউ সুইমিং পুলে নেমে আনন্দে আত্মহারা। কেউ বা আবার হারিয়ে যাছেন চা বাগানের সবুজ গালিচায়।

লেমন গার্ডেনের দৃষ্টিনন্দন গাছগাছালি আর বিভিন্ন প্রজাতির পাখি আর্কষণ করছে পর্যটকদের। পাশাপাশি শিশুদের বিনোদনের জন্য এ পার্কে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের রাইডার।

ঢাকা থেকে আসা দুলন দেব বলেন, ঈদের ছুটিতে তারা মৌলভীবাজারে বেড়াতে এসেছেন। সকাল থেকেই শ্রীমঙ্গলের বিভিন্ন স্পটে ঘুরে বেড়াচ্ছেন।

ছায়ানটের শিল্পী তন্নি সমাদ্দার বলেন, “ঘুরে বেড়ানোর ভিন্ন ভিন্ন আমেজ একমাত্র মৌলভীবাজার জেলা পাওয়া যায়। যেখানে পাহাড়, নদী, বন, হাওর, জীবজন্তু, জাদুঘর, চা আনারস লেবু বাগান, পাখির অভয়ারণ্য সবই আছে।”

শ্রীমঙ্গলের সিতেশ বাবুর বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন দেখতে আসা অমলেন্দু জানালেন, এ জায়গা সত্যি বৈচিত্রময়।

পর্যটক বাড়ায় রিসোর্টগুলোতেও ভিড় বেড়েছে বলে জানালেন শ্রীমঙ্গল লেমন গার্ডেন রির্সোট এর মালিক মো. সেলিম মিয়া। 

তিনি বলেন, ঈদের ছুটিতে তারা বেশ সাড়া পেয়েছেন। ঈদের আগেই তাদের ৯৫ শতাংশ রিসোর্ট বুকিং  হয়েছে।

শ্রীমঙ্গল গ্র্যান্ড সুলতান রিসোর্ট গ্র্যান্ড গলফ এর সহকারী মহা ব্যবস্থাপক আরমান খান বলেন, এই ঈদে তাদের রির্সোট পুরোটাই বুকিং হয়ে গেছে। পর্যটকদের জন্য তারা স্পেশাল ছাড়ও দিয়েছেন।

বরাবরের মত এবারও শ্রীমঙ্গলে ঈদে প্রচুর পর্যটকের আগমন ঘটেছে বলে জানান শ্রীমঙ্গল টি হেভেন এর সত্ত্বাধিকারী আবু সিদ্দিক মো. মুছা।

“দেশের অনান্য জায়গায় ছুটি কাটাতে গিয়ে ২/৩ দিনের বেশি লোক থাকেনা; কিন্তু শ্রীমঙ্গলে ঈদের পরও টানা  ৮/১০ দিন পর্যটকের ভিড় থাকে,” বলেন তিনি। 

ঢাকা থেকে বেড়াতে আসা পর্যটক শোভন ও জিসান বলেন, শ্রীমঙ্গলের সৌন্দর্যে ভাটা পড়েছে ভাঙ্গা রাস্তাঘাটে। শহরও অপরিচ্ছন্ন। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের নজর দেওয়া প্রয়োজন।

এদিকে সারা দেশে ডেঙ্গু আতঙ্কের কারণে মৌলভীবাজারের শহর ও শহরতলীর প্রত্যেকটি হোটেল ও রিসোর্ট মালিকদের পরিচ্ছন্নতার প্রতি নজর দিতে জোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে শ্রীমঙ্গল উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহিদুল হক জানান।

মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক পার্থ সারথি দত্ত জানান, তারা ঈদে সকল ডাক্তার ও নার্সদের ছুটি বাতিল করেছেন। ঈদে বেড়াতে আসা পর্যটক ও বাড়িতে আসা মানুষের প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যসেবার জন্য তারা প্রস্তুত রয়েছেন।

পর্যটকদের নিরাপত্তার সব ধরনের ব্যবস্থা রয়েছে বলে কমলগঞ্জ সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আশরাফুজ্জামান জানান।