ঘূর্ণিঝড় বুলবুল: চাঁদপুর-শরীয়তপুর রুটে ফেরি চলাচল বন্ধ

  • চাঁদপুর প্রতিনিধি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-11-09 10:38:47 BdST

bdnews24

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ এর প্রভাবে চাঁদপুর-শরীয়তপুর রুটে ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

শনিবার সকাল ৯টা থেকে এ রুটে ফেরি চলাচল পরবর্তী নির্দেশ না পাওয়া পর্যন্ত বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

বিআইডাবলিউটিএ চাঁদপুর বন্দর কর্মকর্তা আবদুর রাজ্জাক জানান, বৈরী আবহাওয়ার কারণে শুক্রবার রাত ৯টার পর থেকে চাঁদপুর থেকে ঢাকা, নারায়নগঞ্জসহ সকল রুটে নৌ-যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না পাওয়া পর্যন্ত লঞ্চ চলাচল বন্ধ থাকবে।

চাঁদপুর-শরীয়তপুর রুটে ফেরি চলাচল থাকায় মেঘনা নদীর দুই পাড়ে শতাধিক যানবাহন আটকা পড়েছে উল্লেখ করে বিআইডাবলিউটিসি চাঁদপুর হরিনা ফেরিঘাট ম্যানেজার ফয়সাল আহমেদ বলেন, “আবহাওয়া স্বাভাবিক হলে এ রুটে ফেরি চলাচল শুরু হবে।”

চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান বলেন, ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ মোকাবেলায় আমরা সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছি। সরকারি সকল কর্মকর্তার ছুটি বাতিল করা হয়েছে।

তিনি বলেন, মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলার এবং বলগেট, ড্রেজার ইত্যাদি ছোট নৌযানকে নিরাপদে সরিয়ে আনা হয়েছে। জনসাধারণকে সতর্ক করতে বিভিন্ন চরাঞ্চলে মাইকিং করা হচ্ছে।

দুর্যোগ মোকাবেলায় ১১৭টি মেডিকেল টিম, স্থানীয় স্কাউট, রেডক্রিসেন্ট, বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সদস্যদের প্রস্তুত রাখা হয়েছে বলে জানান তিনি।

তিনি জানান, চাঁদপুর জেলার ৩১১টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা ছাড়াও সরকারি-বেসরকারি ১১৩০জন স্বেচ্ছাসেবক, ৭৫০জন গ্রাম পুলিশকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

তাছাড়া গত রাতে মন্ত্রণালয় থেকে চাঁদপুর জেলার জন্য নগদ ৫ লাখ টাকা ও ১০০ মে. টন চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, জেলার জন্য এই মুহূর্তে ১৮৪ টন চাল, ১.৬১ লক্ষ টাকা, ৭৩৪ বান্ডিল ঢেউটিন ও পর্যাপ্ত শুকনা খাবার মজুদ রাখা হয়েছে।

“চাহিদা অনুযায়ী আরো বরাদ্দ দেওয়া হবে বলে জানানো হয়।”


ট্যাগ:  চট্টগ্রাম বিভাগ  চাঁদপুর জেলা