বগুড়ায় ভক্তদের কাঁদিয়ে বিদায় নিলেন আব্দুল মান্নান

  • বগুড়া প্রতিনিধি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-01-20 22:55:51 BdST

bdnews24

অগণিত ভক্তর চোখের জলে সিক্ত হয়ে চির বিদায় নিলেন জাতীয় সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নান।

সোমবার বগুড়ার কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ সংলগ্ন স্থানে লাশ দাফন করা হয়েছে বগুড়া-১ আসনের সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের সাবেক প্রচার প্রকাশনা ও সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মান্নান।

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে গত বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকার ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয় মান্নানকে। অবস্থার অবনতি ঘটলে ও রাতেই তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়। শনিবার সকালে তার লাইফ সাপোর্ট খুলে নেওয়া হয়।

সোমবার বেলা সাড়ে ১২টায় সেনাবাহিনীর একটি হেলিকপ্টারে তার লাশ বগুড়ার সোনাতলা সরকারি মডেল হাইস্কুল এন্ড কলেজ মাঠে নিয়ে আসা হয়। এরপর তার লাশ লাশবাহী গাড়িতে করে সোনাতলা শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে নেওয়া হয়। সেখানে তাকে শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য প্রায় ঘণ্টাব্যাপী সবার জন্য লাশ উন্মুক্ত করে রাখা হয়।

এরপর আব্দুল মান্নানের মরদেহ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় প্রদান করা হয়। তার কফিনে ডেপুটি স্পিকার, কৃষিমন্ত্রী, জেলা প্রশাসক, বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগ, বগুড়া প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ, উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা আওয়ামী লীগ, জেলা ছাত্রলীগ, সোনাতলা প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন সংগঠন ও রাজনৈতিক নেতাকর্মী, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে তার কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম মাঠে সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নানের দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সে করে তার লাশ বগুড়ার সারিয়াকান্দি সারিয়াকান্দি ডিগ্রি কলেজ মাঠে বেলা সাড়ে ৩টায় নিয়ে যাওয়া হয়।

সেখানে সকাল থেকে শেষবারের মতো প্রিয়জনের মুখ দেখার জন্য ভিড় জমাতে থাকে বিভিন্ন বয়সী হাজার হাজার মানুষ। তার লাশ এক নজর দেখার জন্য শুধু কলেজ মাঠ নয়, আশপাশের প্রায় এক কিলোমিটার জুড়ে রাস্তায় অবস্থান নেন লোকজন।

এ সময় সারিয়াকান্দি উপজেলা সদরের সব দোকানপাট বন্ধ করে প্রিয় নেতার জানাজায় অংশ নেন সর্বস্তরের জনতা। প্রায় তিন ঘণ্টা সবার জন্য লাশ দেখার সুযোগ করে দেওয়া হয়।

এরপর তৃতীয় জানাজা শেষে জেলার কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ সংলগ্ন স্থানে তার লাশ দাফন করা হয়।

এর আগে ঢাকায় সকালে সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। তার আগে ঢাকা জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নানের কফিনে রাষ্ট্রীয় সম্মান জানানো হয়।

পরে তার কফিনে রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্পিকার ড. শিরিন শারমিন, ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়াসহ সহকর্মী ও রাজনৈতিক নেতাকর্মীরা ফুল দিয়ে শেষ শ্রদ্ধা জানান।


ট্যাগ:  রাজশাহী বিভাগ  বগুড়া জেলা