সীমান্তে নিহত ২ বাংলাদেশির মরদেহ দিয়েছে বিএসএফ

  • নওগাঁ প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-01-25 23:07:03 BdST

bdnews24
বাম থেকে রনজিত কুমার, মফিজুল ইসলাম ও কামাল হোসেন

নওগাঁর সীমান্তে গুলিতে নিহত দুই বাংলাদেশির মরদেহ ফেরত দিয়েছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী-বিএসএফ।

নওগাঁ ১৬ বিজিবির কমান্ডিং অফিসার লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. আরিফুল হক জানান, শনিবার রাতে পোরশা উপজেলার হাপানিয়া সীমান্তের ২৩১ নম্বর মেইন পিলারের কাছে বিজিবি ও বিএসএফের কমান্ডিং পর্যায়ের পতাকা বৈঠকে তাদের লাশ ফেরত দেওয়া হয়।

মৃত দুজন হলেন পোরশা উপজেলার বিষ্ণপুর বিজলীপাড়ার শুভ্র কুমারের ছেলে রজনিত কুমার (২৫) এবং কাঁটাপুকুরের মৃতু জিল্লুর রহমানের ছেলে কামাল হোসেন (৩২)।

গত বৃহস্পতিবার সীমান্তের ২৩১/১০(এস) মেইন পিলারের নীলমারী বিল এলাকায় বিএসএফের গুলিতে রজনিত কুমার, কামাল হোসেন ও পোরশার দিঘীপাড়া গ্রামের খোদাবক্সের ছেলে মফিজুল ইসলাম (৩৫) নিহত হন।

ওইদিন মফিজুলের লাশ পাওয়া গেলেও অপর দুজনের লাশ বিএসএফ নিয়ে যায়।

পতাকা বৈঠকে নেতৃত্ব দেন বাংলাদেশের পক্ষে নওগাঁ ১৬ বিজিবির কমান্ডিং অফিসার লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. আরিফুল হক ও ভারতের পক্ষে ১৫৯ বিএসএফের কমান্ডার হার্ষা জসি।

ঘটনার পর বিজিবির পক্ষ থেকে পতাকা বৈঠকের আহবান জানিয়ে পত্র দেওয়া হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় প্রায় ঘণ্টাব্যাপী পতাকা বৈঠকে চলে।

এ সময় বিএসএফ তাদের জোয়ানদের গুলিতে তিন ব্যাংলাদেশি নিহত হওয়ার কথা স্বীকার করে দুঃখ প্রকাশ করে। এদিকে বিজিবির পক্ষ থেকে এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে এ ধরনের ঘটনার যাতে পুনরাবৃত্তি না ঘটে সেই আহবান জানানো হয়।

লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. আরিফুল ইসলাম বলেন, বিএসএফের গুলিতে নিহত বাংলাদেশি যুবক রনজিত কুমার ও কামাল হোসেনের মরদেহ আইনি প্রক্রিয়া শেষে বিএসএফ ফেরত দিয়েছে শনিবার রাত ৯টার দিকে।

বর্তমানে ওই মরদেহ পোরশা থানা হেফাজতে রয়েছে বলে জানিয়েছেন থানার ওসি শাহিনুল ইসলাম।


ট্যাগ:  রাজশাহী বিভাগ  নওগাঁ জেলা