শেরপুরে জনসমাগম কমছে

  • শেরপুর প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-03-25 09:20:47 BdST

bdnews24

জেলা প্রশাসন থেকে বিজ্ঞপ্তি দেওয়ার পর জেলায় লোকজনের চলাচল কমে গেছে।

বুধবার অফিস-আদালতে উপস্থিতি কম দেখা গেছে। রাস্তাঘাটে অন্যান্য সময়ের তুলনায় সাধারণ মানুষের উপস্থিতি কমে গেছে।

এর আগে শেরপুরের হাট-বাজারসহ জনসমাগম সীমিত করার জন্য জেলা প্রশাসন থেকে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে।

এদিকে, শেরপুরে ১৪ দিনের মেয়াদ শেষ হওয়ায় ৪৪ জন বিদেশ ফেরতে হোম কোয়ারেন্টিন শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এছাড়া বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ৮৯ জন হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন বলেন জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব।

গত ৪ মার্চ থেকে জেলায় বিদেশ ফেরত সব প্রবাসীকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা শুরু হয়। হোম কোয়ারেন্টাইন সংক্রান্ত বিধি ভাঙার অভিযোগে তিনজন বিদেশ প্রত্যাগতকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক আনার কলি জানান, শেরপুর জেলার পাঁচটি উপজেলায় ১৫০ জনকে আইসোলেশনে রাখার ব্যবস্থা আছে। জরুরি আইসোলেশনের জন্য পিটিআই-এ ২০০ শয্যা বিশিষ্ট আইসোলেশন ওয়ার্ড প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এছাড়া যুব উন্নয়ন ভবন প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, জেলায় ৯৪ জন চিকিৎসক এবং ১৩০ জন নার্স কর্মরত রয়েছেন। জেলার কোন হাসপাতালেই আইসিইউ-এর ব্যবস্থা নেই।

“প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের জন্য নকলা ও নালিতাবাড়ী উপজেলার দুইটি স্টাফ কোয়ার্টারে সাতজন রোগীকে রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে।”

জেলা প্রশাসনের পক্ষ জনগণকে সচেতন করতে থেকে লিফলেট বিতরণ, পোস্টার ও প্যানা লাগানো ও মাইকিংসহ ফেইসবুক ও মসজিদে সচেতনতামূলক প্রচার  চালানো হচ্ছে বলেও জানান তিনি।


ট্যাগ:  শেরপুর জেলা  ময়মনসিংহ বিভাগ