বাঘাইছড়িতে জেএসএস-লারমা সমর্থককে গুলি করে হত্যা

  • রাঙামাটি প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-03-25 23:22:02 BdST

রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে আবারও একটি আঞ্চলিক দলের এক সাবেক কর্মীকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে।

বুধবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার রূপকারি ইউনিয়নে সশস্ত্র দুর্বৃত্তদের হামলায় নিহত হন ভূষণ চাকমা দুদোরবু (৪০) নামে এই ব্যক্তি। আহত হয়েছেন তার স্ত্রী। 

ঘটনাটি শোনার পর সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছে বলে জানান বাঘাইছড়ি থানার ওসি এম এ মনজুর হক।

ভূষণ ১৫ দিন আগে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (এমএন লারমা) সহযোগী সংগঠন পার্বত্য চট্টগ্রাম যুব সমিতি থেকে বহিষ্কার করা হয় বলে জানিয়েছেন সংগঠনটির বাঘাইছড়ি উপজেলা কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক যোশি চাকমা। তবে ভূষণ সংগঠনের সমর্থক বলেও নিশ্চিত করেছেন যোশি ।

যোশি চাকমা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “ভূষণ চাকমা রাতে স্ত্রীসহ এক প্রতিবেশীর বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলেন। সেখানে রূপকারি বিজয়ঘাট এলাকায় নদী পাড় হয়ে এসে সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জনসংহতি সমিতির সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা তাকে গুলি করে হত্যা করে। এসময় তার স্ত্রীর শরীরেও গুলি লেগেছে বলে জেনেছি।”

জনসংহতি সমিতির (এমএন লারমা) অন্যতম শীর্ষ নেতা ও বাঘাইছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান সুদর্শন চাকমা বলেন, “ভূষণ আমাদের সমর্থক। তাকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জনসংহতি সমিতি নির্মমভাবে হত্যা করেছে। আমরা এই হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের গ্রেপ্তার ও বিচার দাবি করছি।”
এই অভিযোগের বিষয়ে সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির একাধিক নেতার সঙ্গে কথা বলতে চেষ্টা করেওে কারও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

বাঘাইছড়ি থানার ওসি মনজুর বলেন, “ফোনে বিষয়টি জেনেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে।”

ওসি জানান, ভূষণের মূল বাড়ি বঙ্গলতলী হলেও তিনি পরিবার নিয়ে রূপকারিতে থাকতেন।


ট্যাগ:  চট্টগ্রাম বিভাগ  বাঘাইছড়ি উপজেলা  রাঙামাটি জেলা