কক্সবাজারে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত ৪

  • কক্সবাজার প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-03-28 11:16:18 BdST

bdnews24

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় বিজিবি ও পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধের দুটি পৃথক ঘটনায় চারজন নিহত হয়েছেন।

তাদের মধ্যে লেদা ছুরিখাল এলাকায় নিহত হন অজ্ঞাতপরিচয় তিনজন। আর তুলাতলি এলাকায় নিহত হয়েছেন মুসা আকবর (৩৬) নামে স্থানীয় এক ব্যক্তি।

শনিবার ভোরে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের লেদা ছুরিখাল এলাকা ও হোয়াইক্যং ইউনিয়নের তুলাতলি এলাকায় তারা নিহত হন।

বিজিবির টেকনাফ ২ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. ফয়সল হাসান খান বলেন, “ভোরে লেদা ছুরিখাল এলাকা দিয়ে মিয়ানমার থেকে ইয়াবার বড় একটি চালান পাচার হয়ে আসার খবরে বিজিবির একটি দল অবস্থান নেয়। একপর্যায়ে মিয়ানমার দিক থেকে নৌকা দিয়ে চার-পাঁচজন লোক নাফ নদী পার হয়ে আসতে দেখে বিজিবির সদস্যরা থামার জন্য নির্দেশ দেন। বিজিবির সদস্যদের দেখতে পেয়ে সন্দেহজনক লোকজন দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে।

“ বিজিবির সদস্যরা ধাওয়া দিলে সন্দেহজনক লোকজন অতর্কিত গুলি ছুড়তে থাকে। বিজিবির সদস্যরাও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোড়ে। এক পর্যায়ে কেওড়া বনের ভেতর দিয়ে কয়েকজন পালিয়ে গেলেও গোলাগুলি থামার পর ঘটনাস্থলে তিনজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। তাদের কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তিনজনকে মৃত ঘোষণা করেন।”

এই তিনজনই মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিক বলে তিনি ধারণা করলেও পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি বলে তিনি জানান।

এছাড়া টেকনাফে মুসা আকবর (৩৬) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

মুসা টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের তুলাতলি এলাকার আবুল বশরের ছেলে।

টেকনাফ থানার পরিদর্শক প্রদীপ কুমার দাশ বলেন, “মুসার বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসাসহ নানা অভিযোগে আটটির বেশি মামলা রয়েছে। ভোরে তুলাতলি এলাকায় মাদক লেনদেনের জন্য কতিপয় লোকজন অবস্থান করছে বলে খবর পেয়ে পুলিশের একটি দল অভিযান চালায়।

“পুলিশ সদস্যদের লক্ষ করে মাদক ব্যবসায়ীরা গুলি ছুড়তে থাকে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোড়ে। একপর্যায়ে গোলাগুলি থেমে গেলে ঘটনাস্থলে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। ”


ট্যাগ:  কক্সবাজার জেলা  চট্টগ্রাম বিভাগ