‘সামাজিক দূরত্ব’ মানছে না মুন্সীগঞ্জের গোয়ালিমান্দ্রায়

  • মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-03-31 18:59:17 BdST

bdnews24

সারা বিশ্বে করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে সরকারের সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশনাও মানা হচ্ছে না মুন্সীগঞ্জের কয়েকটি গ্রামে।

লৌহজং থানার ওসি আলমগীর হোসাইন জানান, মঙ্গলবার লৌহজং উপজেলার গোয়ালীমান্দ্রায় হাট মিলেছে এবং হাটে প্রচুর জনসমাগম হয়।

উপজেলার ঘোড়াদৌড়, মালি অংক, নওপাড়া এবং বড়মোকাম বাজারেও একই চিত্র দেখা গেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

সারা বিশ্বে মহামারীরূপে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় সরকার দেশে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে মানুষকে ঘরে থাকার কথা বলেছে। জরুরি কাজে গেলেও যেকোনো মানুষকে আরেকজনের কাছ থেকে অন্তত তিন ফুট দূরত্বে থাকতে বলা হয়েছে। হাটবাজার, সভা-সমাবেশসহ ধর্মীয় ও সামাজিক অনুষ্ঠান বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 

ওসি আলমগীর জানান, প্রতি মঙ্গলবারের মতো লৌহজং উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের গোয়ালীমান্দ্রা হাটে ছিল মানুষের ঢল। সেখানে গিয়ে দেখা যায় সামাজিক দূরুত্ব দূরে থাক মানুষের গা ঘেঁষে মানুষ দোকানিদের কাছ থেকে বিভিন্ন জিনিসপত্র কেনাকাটা করছে।

তিনি জানান, লৌহজয়ের পাশের আরও দুটি উপজেলাসহ ফরিদপুর জেলা, মাদারীপুরের শিবচর উপজেলা ও মাদবরের চর থেকে বিভিন্ন জিনিসপত্র নিয়ে আসে এ হাটে। এ সব কারণে কয়েক হাজার মানুষ এ হাটে সমাগম ঘটে প্রতি হাটবারে।

এলাকার মানুষের কাছে খবর পেয়ে লৌহজং থানার পুলিশ গোয়ালিমান্দ্রা হাটে গিয়ে হাট ভেঙে দিয়েছে বলে ওসি আলমগীর হোসাইন জানিয়েছেন।

ওসি আরও বলেন, তাদের ৫/৬টি টিম সর্বক্ষণ প্রচার অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে করোনাভাইরাসের প্রতিরোধে করণীয় বিষয়ে। রাতে বিভিন্ন চায়ের দোকানে হানা দেওয়া হলে তারা কিছুক্ষণ বন্ধ রাখে; কিন্তু পুলিশ চলে গেলে লোকজনের চাপের মুখে আবার খুলে চা বিক্রি করছে।

এছাড়া, লৌহজং উপজেলার ঘোড়াদৌড়, মালি অংক, নওপাড়া, বড়মোকাম বাজারেও একই চিত্র দেখা যায় এবং পরে পুলিশ গিয়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে বলে জানান ওসি।


ট্যাগ:  মুন্সীগঞ্জ জেলা  ঢাকা বিভাগ