কক্সবাজারের পাহাড়ে অগ্নিকাণ্ড

  • কক্সবাজার প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-04-01 00:59:55 BdST

bdnews24

কক্সবাজারের পাহাড়ে অগ্নিকাণ্ডে অন্তত ১০ একরের বেশি বনের ক্ষতি হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকালে টেকনাফের সংরক্ষিত বনাঞ্চলের নাইট্যং পাহাড়ী এলাকায় এ অগ্নিকাণ্ড ঘটে বলে জানান বনবিভাগের টেকনাফ রেঞ্চের কর্মকর্তা ছৈয়দ আশিক আহমেদ।

তবে কীভাবে বা কী কারণে আগুনের লেগেছে তা নিশ্চিত করতে পারেননি বনবিভাগের সংশ্লিষ্টরা।

অগ্নিকাণ্ডের পরপরই বনকর্মীরাসহ পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা প্রায় সাত ঘণ্টা চেষ্টার রাত ১০টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে বলে জানান তিনি।

টেকনাফের এ রেঞ্চ কর্মকর্তা জানান, অগ্নিকাণ্ডের কারণ এখনো নিশ্চিত হওয়া সম্ভব হয়নি। আগুন লাগার রহস্য উদঘাটনে তদন্ত চলছে।

ছৈয়দ আশিক বলেন, “মঙ্গলবার বিকালে টেকনাফের নাইট্যং পাহাড়ী এলাকায় অন্তত ১০-১২টি জায়গায় আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। বনকর্মী ও স্থানীয় লোকজনের কাছ থেকে আগুন লাগার খবর শোনার পরপরই তা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস স্টেশনে জানানো হয়।

"নাইট্যং এলাকার পাহাড়গুলো খুবই উঁচু। তাই নিয়ন্ত্রণে আনতে বেশ সময় লেগে যায়। পাহাড় চূঁড়ায় পাইপ নল তুলতে কষ্টকর হওয়ায় অগ্নিনির্বাপক কর্মীদের বেগ নিতে হয়। এতে সাত ঘণ্টার বেশি সময় চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণ আনা সক্ষম হয়।"

এ রেঞ্চ কর্মকর্তা বলেন, " আগুনে ১২ একরের বেশি সংরক্ষিত বন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এতে নানা প্রজাতির বন্যপ্রাণি ও পশুপাখির আবাসস্থল ক্ষতির পাশাপাশি বেশ কয়েক হাজার গাছসহ ওই এলাকার ঘন জঙ্গল ধ্বংস হয়েছে।"

এক ঘণ্টার মধ্যে বনটির ১০ থেকে ১২টি জায়গায় একযোগে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে বলে জানান ছৈয়দ আশিক।

আশিক জানান, "কী কারণে বা কারা আগুন লাগিয়েছে তা খুঁজে বের করতে তদন্ত চলছে।"

খোঁজ নিয়ে তদন্তের পর ক্ষতির প্রকৃত পরিমাণসহ ঘটনার কারণ বিস্তারিত জানা সম্ভব হবে জানান তিনি।


ট্যাগ:  কক্সবাজার জেলা  চট্রগ্রাম বিভাগ