ঢাকা-১ আসনের দুই উপজেলাও অবরুদ্ধ

  • কেরানীগঞ্জ-দোহার-নবাবগঞ্জ প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-04-08 21:41:34 BdST

bdnews24

ঢাকার দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলা দুইটি বৃহস্পতিবার থেকে অবরুদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে বৃহস্পতিবার থেকে ‘আংশিক লকডাউন’ বলছেন প্রশাসনের কর্মকর্তারা। 

দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলা নিয়ে জাতীয় সংসদের ঢাকা-১ আসন। এ আসনের সংসদ সদস্য সালমান এফ রহমান।

বুধবার সন্ধ্যায় দোহার থানার ওসি সাজ্জাদ হোসেন জানান, সংসদ সদস্য সালমান এফ রহমান, ঢাকা জেলা প্রশাসক আবু সালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খান ও ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সরদার আলাপ করে দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলার মানুষের স্বার্থে সমন্বিতভাবে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

রাজধানী ঢাকা ও পাশ্ববর্তী কেরানীগঞ্জ উপজেলায় কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হওয়ায় এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে দোহার ও নবাবগঞ্জের মধ্যে সড়ক যোগাযোগও অনেকটা বিচ্ছিন্ন থাকবে বলেও জানান তিনি।

ওসি সাজ্জাদ আরও বলেন, “ঢাকা জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশে বৃহস্পতিবার থেকে ‘আংশিক লকডাউনের’ সিদ্ধান্ত কার্যকর করবে পুলিশ।

“দোহারের নয়টি ছোট ছোট সড়ক দিয়ে যান চলাচল একেবারে বন্ধ থাকবে।”

শুধুমাত্র ঢাকা-দোহার সড়কের ফুলতলা, পালামগঞ্জ ও নিকড়া সড়ক দিয়ে পণ্যবাহী যান চলাচল করতে পারবে বলে জানান তিনি।

এসব স্থানে চেকপোস্ট বসানো হবে এবং থার্মাল স্ক্যানার দিয়ে চেক করে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে।প্রতিটি সড়কে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া মানুষের চলাচল সীমিত করা হবে। দোহার উপজেলার মানুষের স্বার্থেই এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানান ওসি।

দোহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আফরোজা আক্তার রিবা বলেন, “রাজধানী ঢাকা ও কেরানীগঞ্জে করোনা রোগী বাড়ছে তাই বিষয়টি নিয়ে ঢাকা জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের সাথে কথা বলেছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য।

“পরিস্থিতি বিবেচনায় জনস্বার্থে ‘আংশিক লকডাউনের’ সিদ্ধান্ত হয়েছে। বিভিন্ন স্থানে চেকপোস্টের মাধ্যমে যান ও মানুষ চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হবে।”

নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এইচ এম সালাহউদ্দিন মনজু বলেন, পার্শ্ববর্তী কেরানীগঞ্জ উপজেলায় কয়েকজন করোনাভাইরাসের রোগী শনাক্ত হয়েছে। রাজধানী ঢাকাতেও এ রোগীর সংখ্যা বাড়ছে।

“সেকারণে বাইরের কেউ যাতে বৃহস্পতিবার থেকে নবাবগঞ্জে অবাধে প্রবেশ না করতে পারে সেজন্য কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে চেকপোস্ট বসানো হবে।

“একই সাথে পণ্যবাহী যান ছাড়া সব ধরনের যানবাহন চলাচল থাকবে সীমিত।”

এদিকে, করোনাভাইরাস আতঙ্কে দোহার ও নবাবগগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন গ্রামবাসী নিজেদের উদ্যোগে বাঁশ দিয়ে আটকে লকডাউন করে দিয়েছে। প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না কোন যানবাহন। অপরিচিত লোক দেখলে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।


ট্যাগ:  দোহার উপজেলা  ঢাকা বিভাগ  নবাবগঞ্জ উপজেলা