ট্রাক উদ্ধারের ৪ ঘণ্টা পর রডের নিচে মিলল ১৩ লাশ

  • গাইবান্ধা প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-05-21 19:17:33 BdST

bdnews24

গাইবান্ধায় দুর্ঘটনায় পড়া ট্রাক উদ্ধারের চার ঘণ্টা পর ডোবা থেকে রড তুলতে গিয়ে ১৩ জনের লাশ দেখতে পান বলে পুলিশ জানিয়েছে।

নিহতদের মধ্যে ১০ জন মধ্যবয়স্ক পুরুষ আর তিনটি শিশুও রয়েছে; যারা ওই ট্রাকে করে বাড়ি ফিরছিলেন বলে পুলিশের ধারণা।

জেলার গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি আবদুল কাদের জিলানী বলেন, অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় অম্পানের কারণে জেলাজুড়ে বুধবার সন্ধ্যা থেকে বৃষ্টি ও হালাক ঝড়ো হাওয়া বইছিল। এই দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার মধ্যে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার জুনদহ দুবলাগাড়ী এলাকায় রংপুর-ঢাকা মহাসড়কে ট্রাক দুর্ঘটনার খবর আসে। সঙ্গে সঙ্গে ফায়ার সার্ভিসের সহযোগিতায় ঘটনাস্থল থেকে ট্রাকটি উদ্ধার করে থানায় আনে পুলিশ। এ সময় সেখানে কাউকে পাওয়া যায়নি।

ওসি বলেন, “বেলা সাড়ে ১২টার দিকে দুর্ঘটনাস্থল থেকে রডগুলো উদ্ধার করতে গিয়ে দেখা যায় রডের নিচে ডোবায় লাশ আর লাশ। একে একে সেখান থেকে ১০ জন মধ্যবয়স্ক পুরুষ আর তিন শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়।

“ধারণা করা হচ্ছে করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে বাস বন্ধ থাকায় তারা আইনশৃংখলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে ঢাকা বা গাজীপুর থেকে ওই ট্রাকে করে বাড়ি ফিরছিলেন।”

তবে কিভাবে ট্রাকটি দুর্ঘটনায় পড়ে সে বিষয়ে পুলিশ এখনও নিশ্চিত পারেনি।

পলাশবাড়ী থানার ওসি মাসুদুর রহমান প্রাথমিক তদন্তের তধ্যে বলেন, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা রংপুরগামী এই ট্রাকে রডের ওপর বসে বাড়ি ফিরছিলেন তারা। ট্রাকটি ত্রিপলে ঢাকা ছিল।

“প্রচুর বৃষ্টি ও হালকা ঝড়ো হাওয়ার মধ্যে ট্রাকটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশে খাদে পানির মধ্যে উল্টে পড়ে। এতে করে তারা রডের নিচে পানির মধ্যে চাপা পড়া আর বের হতে পারেনি। ফলে ঘটনাস্থলেই তারা মারা যান।”

তবে ট্রাকচালক বা তার সহকারী সম্পর্কে এখনও কোনো তথ্য পায়নি পুলিশ। পুলিশ দুর্ঘটনার কারণ উদ্ঘাটনের জন্য সব বিষয় তদন্ত শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন গাইবান্ধার পুলিশ সুপার মুহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম।


ট্যাগ:  রংপুর বিভাগ  গাইবান্ধা জেলা