খুলনায় সড়ক অবরোধে সংঘর্ষ: মামলায় পাটকল শ্রমিকসহ ১৪ জন

  • খুলনা প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-10-20 22:05:29 BdST

bdnews24

বন্ধ হওয়া রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকদের বিভিন্ন দাবি নিয়ে সড়ক অবরোধকালে সংঘর্ষের ঘটনায় ১৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ।

খানজাহান আলী থানার এসআই মেহেদী হাসান মঙ্গলবার বিকালে এই মামলা দায়ের করেছেন।

খানজাহান আলী থানার ওসি প্রবীর কুমার বিশ্বাস জানান, একই দিন বিকালে আদালতে হাজির করা হলে তাদের জেল হাজতে পাঠানো হয়।

গাড়ি ভাঙচুর ও পুলিশের কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে করা এই মামলায় পাটকল শ্রমিক ও বাম জোটের নেতাদের আসামি করা হয়েছে বলে ওসি জানান।

সোমবার দুপুরে খুলনা-যশোর মহাসড়কে ইস্টার্ন গেট এলাকায় অবরোধ চলাকালে পাটকল রক্ষায় সম্মিলিত নাগরিক পরিষদের আহ্বায়ক কুদরত-ই খুদাসহ ১৪ জনকে আটক করা হয়। তবে রাতে কুদরত-ই খুদাকে থানা থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

ঘটনার দিন সোমবার ১৫ জনকে আটক করা হয়েছে বলে পুলিশ ও আন্দোলনকারীরা জানালেও রাতে পুলিশের বিজ্ঞপ্তিতে ১৪ জনের বলা হয়।

কুদরত-ই খুদা বলেন, বন্ধ রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল চালু ও আধুনিকায়নসহ ১৬ দফা দাবিতে বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমর্থনে পাটকল রক্ষায় সম্মিলিত নাগরিক পরিষদ সোমবার অবরোধ কর্মসূচির ডাক দেয়।

তিনি বলেন, দাবি আদায়ে ইস্টার্ন মিল গেটে শান্তিপূর্ণ অবরোধ শুরু করলে পুলিশ বাধা দেয়। এক পর্যায়ে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ, পুলিশের লাঠিপেটা ও টিয়ারগ্যাস নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে।

সিপিবি জেলা সদস্য সুতপা বেদজ্ঞ বলেন, সিপিবি নেতা এসএ রশীদ, মিজানুর রহমান বাবু, বাসদ নেতা জনার্দন দত্ত নান্টু, শ্রমিক নেতা অলিয়ার রহমানসহ মোট ১৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া হয়েছে।

বুধবার আদালতে তাদের জামিনের আবেদন জানানো হবে বলেও জানান তিনি।

খুলনা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি উত্তর) সোনালী সেন বলেন, সোমবার দুপুরে ওই শ্রমিকরা পুলিশের ওপর ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ তৎপর হয়।

মামলার আসামিরা হলেন বাসদ খুলনার সমন্বয়ক জনার্দন দত্ত, যশোরের জেজেআই জুট মিলের সাবেক সিবিএ সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হোসেন খান, গণসংহতি আন্দোলনের ফুলতলা উপজেলা আহ্বায়ক অলিয়ার রহমান, সিপিবির কেন্দ্রীয় সদস্য ও পাটকল রক্ষায় সম্মিলিত নাগরিক পরিষদের সদস্য সচিব এসএ রশিদ, মহানগর সিপিবির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান, শ্রমিক রবিউল ইসলাম, শেখ রবিউল ইসলাম ওরফে রবি, শামসের আলম, ছাত্র ফেডারেশনের খুলনা মহানগর আহ্বায়ক আল আমিন শেখ, শ্রমিক নওশের আলী, ফারুক হোসেন, জাহাঙ্গীর সরদার, শহিদুল ইসলাম ও আবুল হোসেন।

এদের মধ্যে মোজাম্মেল হোসেন খান পলাতক রয়েছেন।


ট্যাগ:  খুলনা বিভাগ  খুলনা জেলা