প্রতিবেদন মুছতে চাপ: যশোরে সাংবাদিকদের দুই সংগঠনের নিন্দা

  • বেনাপোল প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-02-28 15:40:16 BdST

bdnews24

পুরনো প্রতিবেদন মুছে ফেলার জন্য বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে চাপ দেওয়ার ঘটনাকে ‘গণমাধ্যমের স্বাধীনতা রুদ্ধ করার অপকৌশল’ হিসেবে বর্ণনা করে এর নিন্দা জানিয়েছে যশোরের শার্শা রিপোটার্স ক্লাব ও বাগআঁচড়া প্রেসক্লাব।

রিপোটার্স ক্লাবের সভাপতি আসাদুজ্জামান আসাদ, সাধারণ সম্পাদক এম এ রহিম, বেনাপোলের 'গ্রামের সংবাদ' পত্রিকার প্রকাশক সম্পাদক আব্দুল মুননাফ ও বাগআচড়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ স্বাক্ষরিতে দুটি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ বিষয়ে প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।

শার্শা রিপোটার্স ক্লাবের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “আমরা গভীর উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ করছি যে, একটি প্রভাবশালী মহল সম্পূর্ণ অযৌক্তিক ও হয়রানির উদ্দেশ্যে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদকসহ শীর্ষস্থানীয় চারজনকে মামলার হুমকি ও অনৈতিক চাপ প্রয়োগ করে যাচ্ছে, যাকে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা রুদ্ধ করার একটি অপকৌশল হিসেবে মনে করছি।”

বাগআঁচড়া প্রেসক্লাবের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “গণমাধ্যম যখন একটি দেশের দর্পণ হিসেবে কাজ করে, দেশের সঙ্কট-সম্ভাবনা ও গণমানুষের কথা তুলে ধরে সমাজ বিনির্মাণে অনন্য ভূমিকা রাখে, তখন এই গণমাধ্যমই তথাকথিত স্বার্থান্বেষী মহলের অনৈতিক চাপ, মামলার হুমকি কিংবা হয়রানির শিকার হচ্ছে, যা স্বাধীন সাংবাদিকতায় বিরাট অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়েছে।”

সাংবাদিকদের স্বাধীনভাবে পেশাগত দায়িত্ব পালনে প্রভাবশালী মহলের ‘অন্যায় চাপ ও প্রতিবন্ধকতা’ রুখতে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সংগঠন দুটি।

চাপে নত হব না: বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরের প্রধান সম্পাদক 

সংবাদমাধ্যমের কণ্ঠরোধের চেষ্টা: বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরের বিবৃতি 

প্রতিবেদন মুছতে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরকে চাপ: ‘মানহানির’ অভিযোগের বিষয়ে আদেশ পেছাল

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরের প্রতিবেদন মুছতে চাপের পর এবার মামলার আবেদন

গত ১৭ ফেব্রুয়ারি এক সংবাদ সম্মেলনে প্রভাবশালী ব্যক্তিদের ওই চাপের বিষয়গুলো সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের প্রধান সম্পাদক তৌফিক ইমরোজ খালিদী।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, প্রিমিয়ার গ্রুপ অব কোম্পানিজের চেয়ারম্যান সাবেক এমপি এইচ বি এম ইকবালের বিরুদ্ধে গত দেড় দশকে বিভিন্ন সময়ে যেসব মামলা হয়েছে, তার কার্যক্রম আর আদালতের আদেশ নিয়ে অন্য সব সংবাদমাধ্যমের মত বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমেও প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।

সেসব মামলা থেকে তারা অব্যাহতিও পেয়েছেন। এখন, এতদিন পর, সেসব পুরনো খবর মুছে ফেলতে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে অদ্ভুত কায়দায় চাপ দেওয়া হচ্ছে।

দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ইতোমধ্যে তিন ডজনের বেশি উকিল নোটিস পাঠানো হয়েছে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের জ্যেষ্ঠ চার সম্পাদকের নামে। সেখানে বলা হচ্ছে, ওই সব প্রতিবেদন ‘ডিলিট’ না করলে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও ‘মানহানির’ অভিযোগে মামলা করা হবে।

ডা. এইচ বি এম ইকবাল নিজে কোনো নোটিস পাঠাননি। বিভিন্ন জেলা থেকে যারা নোটিস পাঠাচ্ছেন, তারা নিজেদের ডা. ইকবালের বন্ধু, শুভাকাঙ্খী হিসেবে পরিচয় দিচ্ছেন।

এর মধ্যে অন্তত একটি নোটিসে ‘বিরূপ পরিণতির’ জন্য প্রস্তুত থাকার ‘হুমকিও’ দেওয়া হয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

এরকম একজন নোটিসদাতা বরিশালের মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের জ্যেষ্ঠ চার সম্পাদকের বিরুদ্ধে ‘মানহানির’ অভিযোগও করেছেন। ১০ মার্চ এ বিষয়ে আদালতের আদেশ দেওয়ার কথা রয়েছে।

আরও পড়ুন

পুরনো প্রতিবেদন মুছতে চাপ একটি অপকৌশল: শার্শা প্রেসক্লাব 

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরকে চাপ প্রয়োগকারীদের শাস্তি দাবি বিএফইউজের 

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরের ওপর ‘অনৈতিক’ চাপ নিয়ে ডিইউজের উদ্বেগ 

প্রতিবেদন সরাতে চাপ গণমাধ্যমের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ: সিইউজে 

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরকে ‘অনৈতিক’ চাপ প্রয়োগের প্রতিবাদ বিজেএসসির 

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরকে ‘অনৈতিক’ চাপ প্রয়োগের প্রতিবাদ তিন বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস ক্লাবের 

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরের উপর চাপ গণমাধ্যমের স্বাধীনতার জন্য হুমকি: ডুজা 

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরকে ‘অনৈতিক’ চাপ, চাঁদপুরের সাংবাদিকদের প্রতিবাদ

প্রতিবেদন সরাতে চাপ গণমাধ্যমের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ: বাগেরহাট প্রেসক্লাব

প্রতিবেদন সরাতে চাপ স্বাধীন সাংবাদিকতায় বাধা সৃষ্টির কৌশল: চবি সাংবাদিক সমিতি 

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরকে ‘অনৈতিক’ চাপ প্রয়োগের নিন্দা রংপুরে

প্রতিবেদন মুছতে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরের ওপর চাপ: বেরোবিসাসের নিন্দা 

প্রকাশিত সংবাদ তোলায় চাপ সৃষ্টি ‘অনৈতিক’: গাজীপুর প্রেসক্লাব

সংবাদ মুছতে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোরকে চাপ, নিন্দায় ফরিদপুর প্রেস ক্লাব

প্রতিবেদন মুছতে চাপদাতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান সতিকসাসের


ট্যাগ:  বেনাপোল  খুলনা বিভাগ