সারা দেশে মসজিদে মসজিদে ঈদের জামাত

  • নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-05-14 13:44:09 BdST

bdnews24

মেঘে ঢাকা আকাশে বৃষ্টির আশঙ্কার মধ্যে সারা দেশে মসজিদে মসজিদে ঈদের জামাত হয়েছে।

শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে ১০টার মধ্যে এসব জামাত হয়। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই মাস্ক পরে, সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে জামাতে অংশ নিয়েছেন তারা। বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর:

শেরপুর

সকাল ৯টা থেকে ১০টার মধ্যে শেরপুর শহরের বিভিন্ন মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সকাল ৯টায় কালেক্টরেট জামে মসজিদে জাতীয় সংসদের হুইপ আতিউর রহমান আতিক, জেলা প্রশাসনের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক উপসচিব এটিএম জিয়াউল ইসলাম, শেরপুর পৌরসভার মেয়র গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়া লিটন, জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, শহরের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ সর্বস্তরের মানুষ ঈদের নামাজ পড়েন।

নামাজ শেষে করোনাভাইরাস থেকে মুক্তিসহ দেশ-জাতির উন্নতি ও সমৃদ্ধি কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

নামাজ শেষে শেরপুর চাপাতলী পৌর কবরস্থানসহ বিভিন্ন কবরস্থানে গিয়ে প্রিয়জনদের কবর জিয়ারত করে তাদের আত্মার শান্তি কামনা করে দোয়া করেন অনেকে।

ময়মনসিংহ

ময়মনসিংহের আঞ্জুমান ঈদগাহ মাঠ জামে মসজিদে সকাল ৮টায় ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়। মসজিদের বাইরে ঈদগাহ মাঠেও নামাজ পড়েন অনেকে। ইমামতি করেন মসজিদের পেশ ইমাম আব্দুল্লাহ আল মামুন। প্রবেশের দুই ফটকে সবাইকে তল্লাশি করা হয়। মাস্ক ছাড়া কাউকে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি।

জামাতে অংশ নেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ, বিভাগীয় কমিশনার কামরুল হাসান, জেলা প্রশাসক এনামুল হক।

নামায শেষে দেশ-জাতির শান্তি-সমৃদ্ধ ও করোনাভাইরাস থেকে মুক্তি কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

এছাড়া শহরের বড় মসজিদ, আকুয়া মার্কাজ মসজিদ, চরপাড়া জামিয়া ইসলামিয়া, পুলিশ লাইন্স জামে মসজিদ, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদসহ বিভিন্ন মাঠে ঈদ জামাত হয়।

নেত্রকোণা

স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে নেক্রকোণায় মসজিদে মসজিদের ঈদের জামাত হয়েছে।

সকাল সোয়া ৯টায় শহরের মোক্তারপাড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে ঈদের জামাত হয়।

মসজিদের মোতওয়াল্লি এইচআর খান পাঠান সাকি জানান, সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু, জেলার ডিসি কাজি মো. আব্দুর রহমান এই মসজিদে ঈদের নামাজ পড়েন। নামাজ শেষে দেশ ও জাতির কল্যাণে এবং করোনাভাইরাস থেকে সকলকে রক্ষায় দোয়া করা হয়।

পরে প্রতিমন্ত্রী আশরাফ, ডিসি রহমান সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে অনেকের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।

দিনাজপুর

করোনাভাইরাসের কারণে এবার ঐতিহাসিক ঈদগাহ মাঠ গোর-এ-শহীদ ময়দানে ঈদের জামাত হয়নি। তবে বিভিন্ন মসজিদে জামাত হয়েছে।

জেলা শহরের জেনারেল হাসপাতাল জামে মসজিদে ঈদের নামাজ পড়েন বিচারপতি ইনায়েতুর রহিম, জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম, দিনাজপুরে জেলা ও দায়রা জজ আজিজ আহমেদ ভুঁঞা, দিনাজপুরের মুখ্য বিচারিক হাকিম আয়েজ উদ্দীন।

স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে মসজিদ কমিটি যেমন সতর্ক ছিল তেমনি নাজাম পড়তে আসা সবাই মাস্ক পরে জায়নামাজ সঙ্গে আনেন। কাতারে দাঁড়ান দূরত্ব বজায় রেখে।

কুমিল্লা

জেলা শহরের কান্দিরপাড় জামে মসজিসহ শহরের বেশিরভাগ মসজিদে জামাত হয় সকাল ৮ টায়। লোকজনকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে দেখা গেছে।

আগেই কুমিল্লা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক সরকার সারোয়ার আলম সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান। যারা অসুস্থ বা রোগীর সেবায় নিয়োজিত ছিলেন তাদের মসজিদে না আসার জন্য আগেই বলা হয়।

নামাজ শেষে করোনাভাইরাস থেকে বাংলাদেশসহ বিশ্বের সব মানুষের সুরক্ষা, অসুস্থদের দ্রুত আরোগ্য লাভসহ দেশ-জাতির সার্বিক বল্যাণ কামনা করে দোয়া মোনাজাত করা হয়।


ট্যাগ:  ময়মনসিংহ জেলা  নেত্রকোণা জেলা  কুমিল্লা জেলা  চট্টগ্রাম বিভাগ  ময়মনসিংহ বিভাগ  রংপুর বিভাগ