নওগাঁয় শ্রমিক নেতার রগ কর্তন: মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার

  • নওগাঁ প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-05-17 22:14:24 BdST

bdnews24
আত্রাই উপজেলা জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক সরদার সোয়েব

নওগাঁর আত্রাইয়ে এক শ্রমিক নেতার হাত-পায়ের রগ কাটাসহ কুপিয়ে জখম করার মামলায় উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার হয়েছেন।

সোমবার সকালে নিজ বাড়ি থেকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ বেগমকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

রোববার দুপুরে উপজেলা শহরের নিউ মার্কেটে আত্রাই উপজেলা জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক সরদার সোয়েবের (৪৫) অফিসে হামলা হয়। তার হাত-পায়ের রগ কাটাসহ বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে একদল যুবক।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দিয়ে মধ্যরাতে তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। সেখানে একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে।

এই ঘটনায় সোয়েবের স্ত্রী সাবরিনা সুলতানা বাদী হয়ে সোমবার আত্রাই থানায় ১২ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত পরিচয় ৪/৫ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন।

মামলায় আত্রাই উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ বেগমকে হুকুমদাতা হিসেবে ১ নম্বর আসামি করা হয়েছে।

আত্রাই উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ বেগম

আত্রাই উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ বেগম

মামলার নথি থেকে জানা যায়, সরদার শোয়েব রোববার দুপুরে ঠিকাদারি কাজে ব্যক্তিগত অফিসে যান। ওই সময় হঠাৎ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ বেগমের ছেলে মির্জা রাব্বী তার দলবল নিয়ে সরদার সোয়েবের উপর হামলা চালান; কুপিয়ে তার শরীরের বিভিন্ন জায়গায় জখম করেন; দুই হাত ও পায়ের রগ কেটে দেন।

আত্রাই থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ বলেন, সোয়েবের সঙ্গে মমতাজ বেগমের ব্যবসা নিয়ে আর্থিক লেনদেন ছিল। এর কারণে এই হামলা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে।

“হামলার পর জড়িত অভিযোগে মমতাজ বেগমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নেওয়া হয়েছিল। পরে তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে এই মামলায় আসামি হিসেবে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে  পাঠানো হয়েছে।”

বিষয়টির তদন্ত চলছে; বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানান।

২০১৪ সালে মমতাজ বেগম উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।


ট্যাগ:  নওগাঁ জেলা  রাজশাহী বিভাগ