রেডিও-কলার লাগানো সেই বাঘের সাথে ‘বাংলাদেশের ডোরায় মিল’

  • খুলনা প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-06-08 23:40:47 BdST

bdnews24
ছবি- স্ক্রিনশট: দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া

সুন্দরবনের ভারতীয় অংশে ধরা পড়া সেই রয়েল বেঙ্গল টাইগারটির সাথে বাংলাদেশের শুমারিতে পাওয়া ডোরাকাটার মিলের কথা জানিয়েছেন পশ্চিম বন বিভাগের এক কর্মকর্তা।

সম্প্রতি ভারতের সুন্দরবনের প্রধান বন-রক্ষককে উদ্ধৃত করে সেদেশের গণমাধ্যমে খবর হয়েছে, গতিবিধির তথ্য সংগ্রহের জন্য গত ডিসেম্বরে একটি পুরুষ বাঘের গলায় রেডিও কলার পরানো হয়। তারপর কয়েকদিন ভারতের বনে ঘোরাঘুরি করে বাংলাদেশের তালপট্টি দ্বীপের দিকে রওনা হয় বাঘটি।

চার মাসে বাঘটির প্রায় ১০০ কিলোমিটার পাড়ি দেওয়ার তথ্য ভারতীয় বন কর্মকর্তাদের কাছে থাকলেও গত ১১ মে থেকে ওই রেডিও-কলার থেকে আর কোনো সঙ্কেত তারা পাননি। বাঘটি ছোট হরিখালি, বড় হরিখালি এবং রাইমঙ্গল নদী পাড়ি দেওয়ার তথ্য রয়েছে তাদের কাছে।

তবে বাঘটি ভারতের না বাংলাদেশের বনের তা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশের সুন্দরবন পশ্চিম বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা আবু নাসের মোহসিন হোসেন বলেন, “প্রতিটি বাঘের গায়ের ডোরাকাটা দাগ আলাদা। এটা একেবারেই ‘ইউনিক’। কারো সাথে কারো মিল হবে না, ঠিক মানুষের হাতের রেখার মতো।”

তিনি জানান, ২০১৭ সালের বাঘশুমারির সময় তোলা ছবির সঙ্গে ভারতফেরত এ বাঘের গায়ের ডোরাকাটা দাগের মিল পাওয়া গেছে। বিষয়টি আরও নিশ্চিত হতে বন বিভাগের খুলনায় অবস্থিত পশ্চিম সুন্দরবন বিভাগীয় কার্যালয়ে থাকা বাঘ বিষয়ক গবেষণাগারে যাচাই-বাছাই করা হবে।

আবু নাসের আরও জানান, সুন্দরবনের যে অঞ্চলে ফাঁদ পেতে ভারতীয় বন বিভাগ বাঘটিকে ধরেছিল, সেটি বনের বাংলাদেশ অংশ থেকে বেশ কাছে। আর সুন্দরবনের ওই অংশ দিয়ে বাঘ নিয়মিত বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে যাতায়াত করে থাকে।

ওদিকে ভারতের বন কর্মকর্তারাও বলছেন,বাঘটি বেশিরভাগ সময় সুন্দরবনের বাংলাদেশ অংশেই থাকে। আর গত ১১ মে প্রাপ্ত তথ্যে বাঘটির অবস্থান ছিল বাংলাদেশের তালপট্টি এলাকায়।