ঢাকা ফিরতে ঢাকা-ঝিনাইদহ মহাসড়কে ভিড়, গাড়ি পেতে ভোগান্তি

  • ঝিনাইদহ প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-07-31 15:42:33 BdST

bdnews24

কলকারখানা খোলার ঘোষণা আসায় চলমান কঠোর লকডাউনের মধ্যেই ঢাকা ফিরতে ঢাকা-ঝিনাইদহ মহাসড়কে লোকজনের ভিড় বেড়েছে। কিন্তু লকডাউনে গণপরিবহণ বন্ধ থাকায় বিপাকে পড়েছেন ঢাকামুখো যাত্রীরা।

ঝিনাইদহ ট্রাফিট ইন্সপেক্টর সালাহউদ্দিন জানান, শনিবার সকাল থেকে শহরের কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল ও ঢাকা-ঝিনাইদহ মহাসড়কে ঢাকামুখো লোকজন আসতে শুরু করে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভিড় আরও বাড়ছে।

তিনি বলেন, লকডাউনে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় লোকজন ইজিবাইক ও রিকশাভ্যানে করে শহরের বাস টার্মিনালে জড়ো হচ্ছেন। সেখান থেকে আবার ইজিবাইক, মাহেন্দ্রসহ ছোট ছোট যানে ঢাকায় ফিরতে হচ্ছে তাদের।

এক জেলা থেকে অন্য জেলায় গিয়ে সেখান থেকে আবার গাড়ি বদলাতে হচ্ছে। যানবাহন না পেয়ে অনেককে আবার দীর্ঘ সময় বসে থাকতে দেখা গেছে।

এদিকে যাত্রীদের অভিযোগ, গণপরিবহণ না থাকার সুযোগে ছোট গাড়িগুলো ইচ্ছেমতো ভাড়া আদায় করছে। সাধারণ সময়ের চেয়ে এখন কয়েকগুন বেশি ভাড়া হাতিয়ে নেওয়া হচ্ছে।

যশোর থেকে ঢাকাগামী রাশেদুল ইসলাম নামের এক যাত্রী বলেন, “কালকে থেকে অফিস খোলা; অফিস তো যেতেই হবে। সেই কারণে বাচ্চা-কাচ্চা নিয়ে অনেক কষ্ট করে করে সিএনজি অটোরিকশায় করে ঢাকায় যাচ্ছি। ফ্যাক্টারি খুলেছে ঠিক আছে, তবে গাড়িগুলো যদি খুলে দিত তাহলে আমাদের ভোগান্তি হত না।”

একই এলাকা থেকে আসা আব্দুল্লাহ নামের এক যাত্রী বলেন, “আমি অভয়নগর থেকে আসছি; এখন যাব ঢাকা। সঙ্গে আমার স্ত্রী আছে। ১০ টাকার ভাড়া ১০০ টাকা নিচ্ছে। তাও গাড়ি পাওয়া যাচ্ছে না।। খুবই বিপদে আছি।”

চুয়াডাঙ্গার জীবননগর থেকে আসা নাজমুল হোসেন নামের এক যাত্রী বলেন, “সরকার জনগণের কথা যদি ভাবতো তাহলে গণরিবহন চালু করত। এভাবে গাড়ি বন্ধ করে গার্মেন্টস খুলে দেওয়া কোন ভাবেই উচিত হয়নি। মানুষকে এভাবে ভোগান্তি দেওয়া ঠিক না।”