ইভিএমের ‘গতিতে সন্তুষ্ট নন’ বিজয়ী আইভী

  • নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2022-01-17 14:59:18 BdST

bdnews24

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে টানা তৃতীয়বারের মত মেয়র নির্বাচিত সেলিনা হায়াৎ আইভী ইভিএমে ভোটগ্রহণের ‘শ্লথ গতি’ নিয়ে নিজের ‘অসন্তুষ্টির‘ কথা জানালেন।

রোববার সিটির ১৯২টি কেন্দ্রে একযোগে ইভিএমে ভোট শুরুর পরই নৌকা মার্কার প্রার্থী ‘শ্লথ গতির‘ কারণে ভোটারের দীর্ঘ লাইনের কথা বলেছিলেন।

এর প্রভাব ভোটের হারেও পড়েছে বলে সোমবার নিজের বাসায় গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে বলেন আইভী।   

তিনি বলেন, “ইভিএম নতুন টেকনোলজি, একটু প্রবলেম হতে পারে। আমি প্রথম থেকেই বলেছি, ভোট স্লো ছিল। ভোট একটু কম হয়েছে। নদীর ওপারের আমার নারী ভোটাররা ঠিকমত ভোট দিতে পারেনি। পার্সেন্টেজটা হয়ত একটু বেশি হত।

“ইভিএম আরেকটু ফার্স্ট হলে ভাল হত। ভোটের হার বেশি হত।”

প্রতিদ্বন্দ্বী তৈমুর আলম খন্দকারকে প্রায় ৬৭ হাজার ভোটের ব্যবধানে হারিয়ে তৃতীয়বারের মতো মেয়র পদে জয়লাভ করেছেন আইভী।

সোমবার তিনি বলেন, “এই জয়ে মানুষের প্রতি খুবই কৃতজ্ঞ। আল্লাহর প্রতি কৃতজ্ঞ। পাঁচ বছর মানুষের খেদমত করতে পারব। যে মেগা প্রজেক্টগুলো চলছে সেগুলো শেষ করতে পারব, কাজ করতে পারব।”

আগামী দিনে নগর পরিষদ চালাতে গিয়ে সবার পরামর্শ ও সহযোগিতা নেবেন বলেও জানান আওয়ামী লীগের এই নেতা।  

তিনি বলেন, “আজকে তৈমুর কাকার বাসায় যেতে চেয়েছিলাম। কিন্তু উনি তো এখন বাসায় নেই। দেখি বিকালে যদি উনি বাসায় থাকেন তাহলে হয়তো যাওয়ার চেষ্টা করব।

“উনি আমার মুরুব্বি। উনার সঙ্গে পরামর্শ করে আগেও কাজ করেছি, এখনও করি। উনি যে ইশতেহার দিয়েছেন, সেখানে যে কাজগুলো সহজে করা যায়, সেগুলো অবশ্যই করব।”

নির্বাচনে মেয়র পদে তৈমুর আলম খন্দকার হেরে গেলেও তার আপন ছোট ভাই মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ টানা তৃতীয়বারের মত কাউন্সিলর পদে জয় পেয়েছেন; যিনি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের সময় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সারা দেশেই আলোচিত হন।

এ প্রসঙ্গ টেনে আইভী বলেন, “তৈমুর কাকার ছোট ভাই তো নির্বাচিত হয়েছেন। উনার এখানে তো পর্যাপ্ত কাজ হয়েছে। এমন তো নয় যে, তাকে অন্য চোখে দেখেছি। অন্য দলের বলে ভেবেছি। সবসময় খোরশেদকে যতটুকু পেরেছি সহযোগিতা করেছি। যতটুকু সম্ভব সবার সঙ্গে মিলেমিশে কাজ করার চেষ্টা করব।”

নির্বাচনের দিনের আরেকটি অভিজ্ঞতা তুলে ধরে আইভী বলেন, ভোটের আরেকটি ব্যাপার হচ্ছে, নারী ভোটকক্ষগুলো দোতলা-তিনতলায় দেওয়া হয়েছে। এটা ঠিক হয়নি।

“আমার মনে হয়, অনেকে জানেন এই ভোটগুলো আমার। সে কারণে এটা করল কি-না আমি জানি না। নারীরা, বয়স্করা আমাকেই ভোট দেয় সবসময়। আমার ভোট-ব্যাংকে কেউ হানা দিল কি-না খুঁজে দেখতে হবে।”

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার বিষয়ে আইভী বলেন, “এখন তো কোভিডের সময়। তিনি যেদিন সময় দেবেন, সেদিনই যাব।

”আমার সঙ্গে কাজ করতে এসে অনেক কেন্দ্রীয় নেতা কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন। আমি নিজেও অসুস্থ বোধ করছি।”