‘বাবার স্বপ্ন পূরণে’ বিয়ে করতে হেলিকপ্টার, ‘ভিড় জমিয়ে’ বর গেলেন শ্বশুরবাড়ি 

  • কুমিল্লা প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2022-01-27 13:17:20 BdST

bdnews24

বর আর কনের বাড়ির দূরত্ব এক কিলোমিটারেরও কম। তাছাড়া করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়তে থাকায় চলছে সরকারি বিধিনিষেধ। কিন্তু বাবার ইচ্ছা যে পূরণ করতে হবে! তাই সব উপেক্ষা করেই হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে করতে গেলেন বর।

বুধবার দুপুরে কুমিল্লার নাঙ্গলকোটের জোড্ডা ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর গ্রামের ব্যবসায়ী জাকির হোসেন বোনজামাই, ভাই ও মা-বাবাকে নিয়ে হেলিকপ্টারে বিয়ে করতে যান। কনের বাড়ি একই ইউনিয়নের ধামুরপাড়া গ্রামে। এ সময় হেলিকপ্টারে বরযাত্রা দেখতে এলাকায় শত শত উৎসুক মানুষের ভিড় জমে যায়।

স্থানীয়রা জানায়, নিশ্চিন্তপুর গ্রামের কুয়েত প্রবাসী জালাল আহাম্মেদের ছেলে জাকিরের স্থানীয় ভোগই বাজারে হার্ডওয়ারের ব্যবসা রয়েছে। এ ছাড়াও তিনি মাছের ব্যবসাও করেন। বাবার স্বপ্ন পূরণ করার জন্যই হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে করার উদ্যোগ নেন জাকির।

কোভিড বিধিনিষেধের মধ্যে এমন আয়োজন কেন প্রশ্ন করলে উত্তরে জাকিরের বাবা জালাল বলেন, “আসলে বিধিনিষেধের আগেই বিয়ে ঠিক হয়েছিল। তাই বাধ্য হয়ে করতে হয়েছে। জাকির যখন ছোট ছিল তখন থেকে আমার স্বপ্ন, তাকে হেলিকপ্টারে চড়িয়ে বিয়ে করাব। সেই স্বপ্ন পূরণ করতেই এই আয়োজন। আমরা চেষ্টা করেছি স্বাস্থ্যবিধি মেনে আয়োজন করতে।”

আর জাকির বলছেন, “বাবার দীর্ঘদিনের ইচ্ছে পূরণ করতে ঢাকা থেকে ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকায় ভাড়া করে হেলিকপ্টার আনি । আমরা কিছু মানুষ দাওয়াত দিয়েছিলাম। তবে হেলিকপ্টার দেখে গ্রামের অনেক মানুষ জড়ো হয়ে যায়।”

এ বিষয়ে নাঙ্গলকোট থানার ওসি ফারুক হোসেন বলেন, “ওই পরিবারের পক্ষ থেকে আমার কাছে বিয়ের আগে এসেছিল। আমি তাদের নিষেধ করেছি, এখন হেলিকপ্টার আনা যাবে না। তারপরও তারা এই কাজ কেন করেছেন, সেটা আমি জানি না। বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখছি।”

নাঙ্গলকোট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লামইয়া সাইফুল জানান, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকারের বিধিনিষেধ চলছে। হেলিকপ্টারে করে বিয়ে করতে যাওয়ার বিষয়টি তারা জানতেন না। কেউ সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে থাকলে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।