সুন্দরবনের পুরুষ বাঘটির ‘স্বাভাবিক মৃত্যু‘ হয়েছে

  • বাগেরহাট প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2022-01-29 16:13:13 BdST

bdnews24

সুন্দরবনে মারা যাওয়া বাঘটি পুরুষ এবং তার ‘স্বাভাবিক মৃত্যু‘ হয়েছে বলে জানিয়েছে প্রাণিসম্পদ বিভাগ।

শনিবার সকালে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জ কার্যালয়ে বাঘটির মরদেহের ময়নাতদন্ত শেষে এ তথ্য জানান শরণখোলা উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা তোফাজ্জেল হোসেন।

তিনি বলেন, “শনিবার দুপুরে বাঘটির ময়নাতদন্ত করা হয়েছে। মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানতে বাঘের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ সংগ্রহ করা হয়েছে। সেগুলো ঢাকার পরীক্ষাগারে পাঠানো হবে। প্রতিবেদন হাতে পেলেই মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।”

“প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে, বার্ধক্যজনিত কারণেই বাঘটির মৃত্যু হয়েছে।”

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) শামসুল আরেফিন গণমাধ্যমকে বলেন, “সুন্দরবনের দুবলার চর এলাকার টহল ফাঁড়ির বনরক্ষীরা নিয়মিত টহল দেওয়ার সময় ফাঁড়ি সংলগ্ন রূপার খাল এলাকার চরে একটি বাঘকে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়। তখন তারা বাঘটিকে উদ্ধার করে।“

শনিবার সকালে বনকর্মীরা একটি ট্রলারে করে প্লাস্টিক দিয়ে মুড়িয়ে রয়েল বেঙ্গল টাইগারটিকে শরণখোলা রেঞ্জ অফিসে নিয়ে আসে। পরে উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা এর ময়নাতদন্ত করেন।

তিনি বলেন, “বাঘটি পুরুষ প্রজাতির। বাঘটি বয়স আনুমানিক ১৬ থেকে ১৭ বছর। বাঘ সাধারণত ১৫ থেকে ২০ বছর বাঁচে। বাঘটির দৈর্ঘ্য নয় ফুট, উচ্চতা তিন ফুট দুই ইঞ্চি। বাঘের শরীরে কোথাও আঘাতের চিহ্ন নেই।“

ময়নাতদন্ত শেষে বাঘটিকে মাটিচাপা দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

এর আগে ২০১৯ সালের ২০ আগস্ট সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের ছাপড়াখালীর বন থেকে একটি এবং ২০২০ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি একই রেঞ্জের কোকিলমনি টহল ফাঁড়ি সংলগ্ন কবরখালি খালের চর থেকে আরেকটি মৃত বাঘ উদ্ধার করে বন বিভাগ।