২৫ মার্চ ২০১৯, ১১ চৈত্র ১৪২৫

বিনম্র শ্রদ্ধায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

  • জেলা ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-02-21 23:27:18 BdST

bdnews24

শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে সারাদেশে যথাযোগ্য মর্যাদায় শহীদদের স্মরণ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দিবসের প্রথম প্রহরে শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানানো হয়।

২১শে ফেব্রুয়ারিকে পৃথিবীব্যাপী আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালন করা হয়।

দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে প্রতিনিধিদের পাঠানো সংবাদ:

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

রাত ১২টা ১ মিনিটে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন উপাচার্য এম আব্দুস সোবহানসহ প্রশাসনের কমকর্তাগণ।

পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে ভাষা শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করেন তারা।  

ভোরে প্রশাসন ভবনসহ অন্যান্য ভবনে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতভাবে উত্তোলন করা হয়। সকাল থেকে বিভিন্ন আবাসিক হল ও বিভাগ, পেশাজীবী সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান, রাবি শিক্ষক সমিতি, মহিলা ক্লাব, রাবি স্কুল ও শেখ রাসেল মডেল স্কুল, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন প্রভাতফেরী নিয়ে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে।

সকাল ১০টায় শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ সিনেট ভবন চত্বরে চিত্রাংকন ও বাংলা হস্তলিপি প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন উপ-উপাচার্য চৌধুরী মো. জাকারিয়া ও পুরস্কার প্রদান করেন উপাচার্য এম আব্দুস সোহবান।

বাদ জোহর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয় কোরআনখানি ও মোনাজাত। এদিন বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ স্মৃতি সংগ্রহশালা সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত দর্শকদের জন্য খোলা রাখা হয়।

রাজশাহী প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট)

একুশের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন রুয়েট উপাচার্য মো. রফিকুল ইসলাম শেখ ও ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মো. সেলিম হোসেন। পরে শহীদদের সম্মানে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয় এবং সম্মিলিতভাবে জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া হয়।

এরপরই বিভিন্ন হলের প্রভোস্ট, শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারী সমিতির নেতৃবৃন্দ এবং রুয়েট ছাত্রলীগ, ডিবেটিং ক্লাব, রোবটিক ক্লাব, ক্যারিয়ার ক্লাব, ল্যাঙ্গুয়েজ ক্লাব, কালচারাল ক্লাব, রোবটিক সোসাইটিসহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানায়।

ভোরে প্রশাসনিক ভবনসহ সকল ভবনে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতভাবে উত্তোলন করা হয়। বাদ আসর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত ও মিলাদ অনুষ্ঠিত হয়।

ফেনী

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও শহীদ দিবসে ফেনীর দাগনভূইয়ায় ভাষা শহীদ আবদুস সালামের গ্রামে বিপুল জনতার আগমন হয়।

বৃহস্পতিবার সকালে ভাষা শহীদ আবদুস সালাম স্মৃতি জাদুঘর ও গ্রন্থাগারের সামনে অবস্থিত শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন ফেনী-৩ আসনের সাংসদ মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী, জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজজামান, পুলিশ সুপার এস এম জাহাঙ্গির আলম সরকার, ভাষা শহীদ আবদুস সালামের পরিবারের পক্ষে তার ছোট ভাই আবদুল করিম, দাগনভূইয়া উপজেলা চেয়ারম্যান দিদারুল কবির রতন প্রমুখ।  

পরে ভাষা শহীদ আবদুস সালাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে একুশের আলোচনা সভায় অতিথিবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

এদিকে প্রভাতফেরিতে ফেনীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন ফেনী-২ আসনের সাবেক সাংসদ ও বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা জয়নাল আবদীন ভিপি।

এ সময় বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ জেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বিভিন্ন সংগঠন শহীদ বেদিতে ফুল নিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করে।

এর আগে একুশের প্রথম প্রহরে রাতে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন ফেনী-২ আসনের সাংসদ নিজাম উদ্দিন হাজারী, সদ্য সাবেক মহিলা সাংসদ জাহান আরা বেগম সুরমা।

পরে একে একে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, প্রেস ক্লাব, আওয়ামী লীগ, রাজনৈতিক সংগঠন, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ শহীদ বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায়।

এদিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বিকালে ফেনীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার সংলগ্ন রাজাঝির দিঘীর পাড়ে সপ্তাহব্যাপী গ্রন্থমেলার উদ্বোধন করেন ফেনী-২ আসনের সাংসদ নিজাম উদ্দিন হাজারী।

এ সময় জেলা প্রশাসকসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কমকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

কুমিল্লা

রাত ১২টা ১ মিনিটে কুমিল্লা টাউনহল মাঠে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন কু‌মিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি সদর সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার, জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর আলম।

এরপর শ্রদ্ধা জানান জেলা পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলামের নেতৃত্ব পুলিশ প্রশাসনের একটি দল।

এ সময় তারা সমবেত কণ্ঠে -আমার ভাইয়ের রক্তের রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’ গানটি গেয়েছেন।

কুমিল্লা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, মহানগর বিএনপি, যুবদল, ছাএদল, বিএমএ, জেলা আইনজীবী সমিতিসহ বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনও শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করে।

ভোর ৬টা থেকে শহীদ বেদীতে বিভিন্ন রাজনৈতিক অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা, নগরের স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা ফুল হাতে নগ্ন পায়ে হেঁটে সারিবদ্ধভাবে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

একুশে বিষয়ক চলচ্চিত্র প্রদর্শনী, শিশু চিত্রাংকন, রচনা প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভার আয়োজন করে জেলা প্রশাসন ও বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন।

ফরিদপুর

পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ, প্রভাতফেরি, আলোচনা সভা, চিত্রাঙ্কন, স্বেচ্ছায় রক্তদান আর গানের মধ্য দিয়ে অমর একুশে ফেব্রুয়ারি ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করেছে ফরিদপুরের মানুষ।

শহীদ মিনারে পুষ্পস্তাবক অর্পণ করে জেলা প্রশাসন, পুলিশ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, আওয়ামী লীগ, বিএনপি, প্রেসক্লাব, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরাসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও পেশাজীবী সংগঠন।

গাইবান্ধা

গাইবান্ধা শহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাত ১২ টা ১ মিনিটে পুষ্পমাল্য অর্পণের মাধ্যমে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়।

জাতীয় সংসদের হুইপ, জেলা ও পুলিশ প্রশাসন, আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ বিভিন্ন সংগঠন পুষ্পমাল্য অর্পণ করে।

বৃহস্পতিবার সকালে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে প্রভাতফেরি বের হয়ে শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে।

দুপুরে শহরের পৌরপার্কের শহীদ মিনার চত্বরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সন্ধ্যায় শহীদ মিনার চত্বরে ভাষা আন্দোলনের উপর নির্মিত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হয়।

এর আগে বিকালে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ দলীয় কার্যালয়ে শহীদ দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা করে।

এদিকে দিবসটি উপলক্ষে জেলা শিশু একাডেমি শিশুদের সুন্দর হাতের লেখা, চিত্রাংকন, ভাষার গান এবং মাতৃভাষার উপর রচনা ও কবিতা প্রতিযোগিতার আয়োজন করে।

কুষ্টিয়া

একুশের প্রথম প্রহর থেকে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছে সর্বস্তরের মানুষ।

কুষ্টিয়া কালেক্টর চত্বরের শহীদ মিনারে রাত ১২টা ১ মিনিটে কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন ও পুলিশ সুপার এস এম তানভির আরাফাত পুষ্পস্তক অর্পণ করেন।

পরে জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, পেশাজীবী সংগঠন ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

লক্ষ্মীপুর

বিনম্র্র শ্রদ্ধায় ভাষা শহীদদের স্মরণ করলেন লক্ষ্মীপুরের সর্বস্তরের মানুষ।

মধ্যরাতে একুশের প্রথম প্রহরে জেলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের অমর স্মৃতির প্রতি ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জেলা প্রশাসন। পরে লক্ষ্মীপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ার হোসেন খান, লক্ষ্মীপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য শাহজাহান কামাল, জেলা প্রশাসনের পক্ষে জেলা প্রশাসক অঞ্জন চন্দ্রপাল, পুলিশ সুপার আ স ম মাহাতাব উদ্দিন প্রমুখ।

এছাড়া লক্ষ্মীপুর প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও পেশাজীবী সংগঠন শহীদদের শ্রদ্ধা জানায়।

ময়মনসিংহ

একুশের প্রথম প্রহরে টাউন হল কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ। 

এরপর ময়মনসিংহ বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার হাসান মাহমুদ, রেঞ্জ ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঁঝি, ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক ইকরামুল হক টিটু, জেলা প্রশাসক সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস, পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইউসুফ খান পাঠান, ময়মনসিংহ প্রেসক্লাব, আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং এনজিওসহ সর্বস্তরের মানুষ শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

অপরদিকে সকালে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় মহান একুশে ফেব্রুয়ারি ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১ নম্বর গেট থেকে একটি শোক র‌্যালি বের করে। র‌্যালির নেতৃত্ব দেন উপাচার্য মো. আলী আকবর।

পরে ভিসিসহ বিভিন্ন সংগঠন ও শিক্ষক শিক্ষার্থীরা বেদীতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

নওগাঁ

রাত ১২টা ১ মিনিটে নওগাঁ শহরের মুক্তির মোড় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়।

শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন নওগাঁ সদর আসনের সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন জলিল জন, জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান, পুলিশ সুপার ইকবাল হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেক, পৌর মেয়র নাজমুল হক সনি, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফজলে রাব্বী বকু, সিভিল সার্জন মোমিনুল হক, চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ড্রাস্ট্রির সভাপতি ইকবাল শাহরিয়ার রাশেলসহ বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের সদস্যরা।

টাঙ্গাইল

টাঙ্গাইল কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাত ১২টা ১ মিনিটে স্থানীয় সংসদ সদস্য ছানোয়ার হোসেন, জেলা প্রশাসক শহিদুল ইসলাম শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। 

এরপর একে একে পুলিশ সুপার, মুক্তিযোদ্ধা, টাঙ্গাইল প্রেস ক্লাব, জেলা পরিষদ, টাঙ্গাইল পৌরসভাসহ বিভিন্ন সরকারি- ব্যাসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের পক্ষ থেকে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। 

অপরদিকে রাত ১২টা ১ মিনিটে মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য আলাউদ্দিনের নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের পক্ষ থেকে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানিয়ে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। 

এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদ, হল, বিভাগ, মাওলানা  ভাসানী রিসার্স সেন্টার, আইসিটি সেল, আইকিউএসি, শিক্ষক  সমিতি, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন, ভাসানী পরিষদ, তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণী কর্মচারী সমিতি এবং ছাত্র-ছাত্রীদের বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে ১ মিনিট নীরবতা পালন ও ভাষা শহীদদের রূহের মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়। 

মাগুরা

মাগুরা সরকারি হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ শহীদ মিনারে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদনের মধ্যে দিয়ে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পলিত হয়েছে।

রাত ১২টা ১ মিনিটে প্রথমে ফুল দিয়ে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জেলা প্রশাসক প্রশাসক আলী আকবর। এরপর একে একে পুলিশ সুপার খান মোহাম্মদ রেজোয়ান, জেলা দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান, জেলা পরিষদ প্রশাসক পংকজ কুন্ডু, সরকারি হোসেন শহীদ সোহরাওয়াদী কলেজের অধ্যক্ষ দেবব্রত ঘোষ শহীদ বেদিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করেন।

এরপর জেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠন, জেলা বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠন, জেলা জাতীয় পার্টি, জেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ড, জেলা আইনজীবী সমিতি, প্রেসক্লাব, টিভি জার্নালিস্ট এ্যাসোসিয়েশনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সমাজিক , সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ নানা শ্রেণি পেশার মানুষ  শহীদ বেদিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।