ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলে চিতলমারী থানায় হামলা

  • বাগেরহাট প্রতিনিধি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2022-06-20 17:08:42 BdST

bdnews24

ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলে বাগেরহাটের চিতলমারী থানায় হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করা হয়েছে।

সম্প্রতি এক হিন্দু তরুণীর ফেইসবুক আইডি থেকে ইসলাম ধর্মকে অবমাননা করে পোস্ট দেওয়া হলে পুলিশ তাকে থানায় নেয়।

তরুণীর দাবি, তার আইডি হ্যাক করে ওই পোস্ট দেওয়া হয়েছে।

এমন পরিস্থিতিতে কারা হঠাৎ করে হামলা চালাতে আসে তাদের পরিচয় নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ।

বাগেরহাট পুলিশ সুপার দপ্তরের পরিদর্শক এসএম আশরাফুল আলম সাংবাদিকদের বলেন, সম্প্রতি এক হিন্দু তরুণীর আইডি থেকে ইসলাম ধর্মকে অবমাননা করে পোস্ট দেওয়ার অভিযোগ ওঠে। তরুণী শেরেবাংলা ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থী। তাকে হেফাজতে নিয়ে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করেছে।

“তরুণীর দাবি, তার আইডি হ্যাক করে অন্য কেউ এই পোস্ট দিয়েছে। এরই মধ্যে সোমবার বেলা ১২টার দিকে লোকজন বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে এসে থানায় অতর্কিত হামলা করে। হামলাকারীরা ইটপাটকেল ছুড়তে থাকলে পুলিশ তাদের বাধা দেয়। এতে ওসিসহ ১২ পুলিশ সদস্য কমবেশি আহত হন। পরে শর্টগানের ২৪ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অনে পুলিশ।”

হামলাকারীরা থানা ভবনের কাচ, পুলিশের দুটি গাড়ি, চারটি মোটরসাইকেল ও ইউএনওর গাড়ি ভাঙচুর করেছে বলে তিনি জানান।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ১২ জনকে আটক করেছে জানিয়ে পরিদর্শক বলেন, হামলায় জড়িতদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা হবে। ঘটনার পর থানা ও আশপাশে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

“পুলিশ ওই তরুণীর মোবাইল ফোন হেফাজতে নিয়েছে। তার আইডি কে বা কারা হ্যাক করেছে তা পরীক্ষা করা হচ্ছে।”

হামলার খবর পেয়ে চিতলমারীর ইউএনও সাইয়েদা ফয়জুন্নেছা থানায় যাওয়ার পথে তার গাড়িতেও হামলা চালানো হয়।

ইউএনও বলেন, “থানায় হামলার খবর পেয়ে আমি পরিস্থিতি সামাল দিতে উপজেলা পরিষদ থেকে থানার উদ্দেশ্যে রওনা হই। পথে আমার গাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে তারা। তবে আমি রক্ষা পেয়েছি। আমি পরে থানায় না গিয়ে ফিরে এসেছি।

“ধর্ম অবমাননা করে যে-ই পোস্ট দিক তাকে আইনের আওতায় আনা হবে বলে আশ্বস্ত করার পরও তারা এই হামলা চালিয়েছে। পুলিশ ঘটনা তদন্ত করছে। যারা হামলা করেছে তারা কোন এলাকা থেকে এসেছে তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।”