‘শেখ রাসেল স্বর্ণপদক’ দিলেন প্রধানমন্ত্রী

শেখ রাসেল দিবসের প্রথম আয়োজনে তার নামে প্রবর্তিত ১০টি স্বর্ণপদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার ঢাকার বঙ্গবন্ধু সম্মেলন কেন্দ্রে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ আয়োজিত এই পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি শেখ হাসিনা।

অনুষ্ঠানে শিক্ষা, ক্রীড়া, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, শিল্পকলা-সাহিত্য-সংস্কৃতি এবং বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশু-এ ৫টি ক্যাটাগরিতে প্রতিটি ১ ভরি করে ১০টি ‘শেখ রাসেল স্বর্ণ পদক’, ১০টি ল্যাপটপ ও সার্টিফিকেট দেওয়া হয়।

এছাড়া শেখ রাসেল অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের ১০টি ল্যাপটপ এবং লার্নিং এন্ড আর্নিং ডেভেলমেন্ট প্রকল্পের (এলইডিপি) আওতায় প্রশিক্ষণার্থীর মধ্যে হতে সর্বোচ্চ উপার্জনকারীদের মধ্যে ৪ হাজার ল্যাপটপ দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদের উদ্যোগে সারাদেশে আয়োজিত ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদেরও পুরস্কার দেওয়া হয়।

একইসঙ্গে অনুষ্ঠানে সংযুক্ত শেখ রাসেল রোলার স্কেটিং স্টেডিয়াম প্রান্তে শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে রোলার স্কেটিং প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট বঙ্গবন্ধুর খুনিরা তার পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে তার ছোট ছেলে ১১ বছরের শেখ রাসেলকেও হত্যা করেছিল। বিদেশে থাকায় তখন বেঁচে যান বঙ্গবন্ধুর দুই মেয়ে শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা।

শেখ রাসেলের জন্ম ১৯৬৪ সালের ১৮ অক্টোবর। তার জন্মদিন এবারই প্রথম ‘শেখ রাসেল দিবস’ হিসেবে পালন করা হচ্ছে। দিবসের প্রতিপাদ্য- ‘শেখ রাসেল দীপ্ত জয়োল্লাস, অদম্য আত্মবিশ্বাস’।

অনুষ্ঠানে ‘শেখ রাসেল শৈশবে ঝরে যাওয়া ফুল’ শীর্ষক বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ প্রকাশিত ‘শেখ রাসেল দৃপ্ত জয়োল্লাস, অদম্য আত্মবিশ্বাস’ শীর্ষক বইয়ের মোড়কও উন্মোচন করেন।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ওই মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব এনএম জিয়াউল আলম বক্তব্য রাখেন।

শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদের মহাসচিব এবং শিশু বক্তা আফসা জাফর সৃজিতা অনুষ্ঠানে তার অনুভূতি প্রকাশ করেন।

অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ পরিবেশিত শেখ রাসেলের দুরন্ত শৈশবভিত্তিক অডিও ভিজ্যুয়াল পরিবেশনা ‘শেখ রাসেল এক অনন্ত বেদনার কাব্য’ এবং ‘থিম সং’ পরিবেশিত হয়।

অনুষ্ঠানে দ্বিতীয় পর্বে শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদের উদ্যোগে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও পরিবেশিত হয়।

এর আগে সকালে শেখ রাসেল দিবস-২০২১’ উদযাপন উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী গণভবনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে স্মারক ডাকটিকেট, উদ্বোধনী খাম ও সিলমোহর অবমুক্ত করেন।