নাজিম হত্যা: জিয়াসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

অনলাইন অ্যাক্টিভিস্ট নাজিমুদ্দিন সামাদ হত্যা মামলায় আনসার আল ইসলামের সামরিক শাখার প্রধান সৈয়দ জিয়াউল হক জিয়াসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইবুনাল।

বৃহস্পতিবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মজিবুর রহমান এ পরোয়ানা জারি করেন বলে জানিয়েছেন

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী গোলাম ছারোয়ার খান জাকির।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে আইনজীবী জাকির বলেন, “গত ১৭ জানুয়ারি ওই মামলায় অভিযোগপত্র গ্রহণের তারিখ ধার্য ছিল। ওই দিন আদালত ৯ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন। পলাতক থাকায় জিয়াসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন বিচারক।”

তাদের গ্রেপ্তার করা গেল কি না, তা জানতে পুলিশের প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ ধার্য করা হয়েছে আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারি।

অভিজিৎ রায়সহ হত্যাসহ বেশ কয়েকটি খুনের মামলায় ফেরার রয়েছেন সেনাবাহিনী থেকে এক দশক আগে চাকরিচ্যুত মেজর জিয়া। তিনি কোথায় আছেন, তাও সরকারের অজানা।

নাজিমুদ্দিন হত্যা মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভুক্ত অন্য চার আসামি হলো- আকরাম হোসেন, মো. ওয়ালিউল্লাহ ওরফে ওলি ওরফে তাহেব ওরফে তাহসিন, সাব্বিরুল হক চৌধুরী ওরফে আকাশ ওরফে কনিক ও মাওলানা জুনেদ আহাম্মেদ ওরফে সাব্বির ওরফে তাহের।

মামলার অন্য চার আসামি রশিদুন নবী ভূইয়া ওরফে টিপু ওরফে রাসেল ওরফে রফিক ওরফে রায়হান, মোজাম্মেল হুসাইন ওরফে সায়মন, মো. আরাফাত রহমান ও মো. শেখ আব্দুল্লাহ কারাগারে আছেন বলে আদালত সূত্রে জানা গেছে।

২০১৬ সালের ৬ এপ্রিল রাতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস শেষে পুরান ঢাকার গেন্ডারিয়ায় মেসে ফেরার পথে নাজিমুদ্দিনকে কুপিয়ে ও গুলি চালিয়ে হত্যা করে জঙ্গিরা।

এ ঘটনায় পরদিন সূত্রাপুর থানার এসআই মো. নুরুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। ২০২০ সালের ২০ অগাস্ট জিয়াসহ নয়জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট।