এই বিশ্বকাপ হবে স্পিনারদের: রশিদ

ফাইল ছবি
সংযুক্ত আরব আমিরাতকে বলা যায় আফগানিস্তানের ঘর। স্বাগতিক দেশ হিসেবে নিজেদের বেশিরভাগ ম্যাচ এখানেই খেলে দলটি। এখানকার কন্ডিশন তাই খুব ভালো করেই চেনা রশিদ খানের। আফগান এই লেগ স্পিনারই বলছেন, এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে স্পিনারদের।

সব সংস্করণ মিলিয়ে আফগানিস্তান তাদের সবচেয়ে বেশি ৩৫ ম্যাচ খেলেছে শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। এরপরের সর্বোচ্চ ২০ ম্যাচ আবু ধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে। দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে তারা লড়েছে ১১টিতে।

দেশের হয়ে তো খেলেছেনই রশিদ, গত দুই আসরে আইপিএলের ম্যাচও খেলেছেন এখানে। তাই নিজের অভিজ্ঞতা থেকে দা ক্রিকেট মান্থলিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলছেন, উইকেট যেভাবেই তৈরি করা হোক, আমিরাতে দাপট দেখাবেন স্পিনাররাই।

“এখানকার কন্ডিশন সবসময় স্পিনারদের জন্য ভালো এবং এটা স্পিনারদের বিশ্বকাপ হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। উইকেট কীভাবে প্রস্তুত করা হয়েছে এখানে এটা কোনো বিষয় না, এটা সবসময়ই স্পিনারদের জন্য সহায়ক।”

ভারত ও আমিরাত মিলিয়ে হওয়া এবারের আইপিএলে পয়েন্ট টেবিলে সবার নিচে ছিল হায়দরাবাদ। দল ব্যর্থ হলেও বল হাতে ঠিকই আলো ছড়ান রশিদ। আসরে স্পিনারদের মধ্যে যৌথভাবে নেন সর্বোচ্চ ১৮ উইকেট। পুরোটাই আমিরাতে হওয়া ২০২০ আইপিএলে সবচেয়ে বেশি উইকেট শিকারির তালিকায় তিনি ছিলেন সেরা দশে।

আইপিএলের গত দুই আসরে আমিরাতে দাপট দেখান স্পিনাররা। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভসহ নক-আউট রাউন্ডও হবে আমিরাতের এই তিন ভেন্যুতে। রশিদের বিশ্বাস, ভালো স্পিনাররা দলকে জেতাতে রাখবে বড় ভূমিকা।

“এই বিশ্বকাপে স্পিনাররা বড় প্রভাব ফেলবে। আমরা আইপিএলে যেমন দেখেছি স্পিনাররা তাদের দলকে খেলায় ফিরিয়ে এনেছে। আমার মনে হয়, বিশ্বকাপেও একই রকম হবে। সেরা স্পিনাররা তাদের দলকে খেলায় ফিরিয়ে আনবে এবং জেতাবে।”

আগামী সোমবার বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করবে আফগানিস্তান।