রহস্য স্পিনারের প্রথম ‘পুরস্কার’

ক্যারিয়ারে প্রথমবার ম্যাচ সেরার পুরস্কার জিতলেন মাহিশ থিকশানা(মাঝে)। ছবি: আইসিসি
তিনি কোন ধরনের বোলার, বোঝা কঠিন। তার স্টক ডেলিভারি কোনটি, খুঁজে পাওয়া ভার। শ্রীলঙ্কার জয়ে সবচেয়ে বড় অবদান রেখে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জিতে মাহিশ থিকশানা সমাধান দিলেন নিজেই। লাজুক হেসে জানালেন, অফ স্পিন।

মাঠে ব্যাটসম্যানদের জন্য ছিলেন রহস্য হয়ে। তার পাতা ফাঁদে পা দিয়ে বিদায় নেন নামিবিয়ার তিন ব্যাটসম্যান। পাঁচ ম্যাচের ছোট্ট ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো জিতলেন এই পুরস্কার।

আবু ধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে সোমবার ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচে ৭ উইকেটে জেতে শ্রীলঙ্কা। ৪ ওভারে ২৫ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন থিকশানা। 

বোলিং অ্যাকশন শ্রীলঙ্কার সাবেক রহস্য স্পিনার অজন্তা মেন্ডিসের মতোই। তার সঙ্গেই অনেক দিন কাজ করে এসেছেন বিশ্বকাপে। পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে অধিনায়ক দাসুন শানাকা জানিয়েছেন, থিকশানার কাছে ভবিষ্যতে আরও অসাধারণ কিছুর প্রত্যাশায় আছেন তিনি।

তৃতীয় ওভারে বল হাতে পান থিকশানা। বিশ্বকাপ অভিষেকে প্রথম বলেই মেলে উইকেট। বেরিয়ে এসে খেলার চেষ্টায় মিড অফে ক্যাচ দেন স্টিভেন বার্ড। পাওয়ার প্লের শেষ ওভারে আবার বোলিংয়ে আসেন থিকশানা। এবার মিড অনে ক্যাচ দেন আরেক ওপেনার জেন গ্রিন।

দ্বাদশ ওভারে ফিরে কোনো উইকেট পাননি থিকশানা, দেন ১২ রান। ষোড়শ ওভারে বোলিংয়ে এসে বোল্ড করে দেন ইয়ান ফ্রাইলিঙ্ককে।

২১ বছর বয়সী স্পিনারের দারুণ বোলিংয়ের পর ৩৯ বল বাকি থাকতেই ৯৭ রানের লক্ষ্য ছুঁয়ে ফেলে শ্রীলঙ্কা। বিশ্বকাপ পুনরুদ্ধারের অভিযানে শুভ সূচনা করে ২০১৪ আসরের চ্যাম্পিয়নরা।