এ সরকারের সময়েই সংখ্যালঘু নির্যাতন বেশি: ডা. শাহাদাত

চট্টগ্রাম নগর বিএনপির আহ্বায়ক ডা. শাহাদাত হোসেনের অভিযোগ এই সরকারের সময়েই সংখ্যালঘুদের ঘরবাড়ি দখল ও নির্যাতন বেশি হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকালে দলীয় কার্যালয় নাসিমন ভবনে শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে উপহার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ অভিযোগ করেন বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে নগর বিএনপির আহ্বায়ক ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, “সংখ্যালঘুদের ঘরবাড়ি দখল ও নির্যাতন এই সরকারের সময়ে বেশি হয়েছে। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির নজির স্থাপন করেছে বিএনপি। বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালীন সময় কোনো নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে এমন কোনো অভিযোগ নেই যে, তারা সংখ্যালঘু হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের জায়গা-জমি দখল করেছে।

“কিন্তু আওয়ামী লীগের অনেক বড় বড় নেতা আছে যারা সংখ্যালঘুদের সম্পত্তি দখল করেছে। গত ১০ বছরে সংখ্যালঘু বেশি নির্যাতিত হয়েছে।”

বর্তমান সরকারের অধীনে কেউ নিরাপদ নয় দাবি করে তিনি বলেন, “কেউ ভোটকেন্দ্রে ভোট দিতে যেতে পারে না। একদলীয়ভাবে দেশ শাসন করছে। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ বাংলাদেশ। আমরা আপনাদের যেকোনো পূজা-পার্বণে আপনাদের পাশে আছি এবং থাকব।

“আমরা মুসলিম, হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান, রাখাইন, মারমা আমাদের একটাই পরিচয় আমরা সকলেই বাংলাদেশী।”

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে সাধারণ মানুষ হাহাকার করছে দাবি করে শাহাদাত বলেন, “বাজার মনিটরিংয়ে সরকারের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। সিন্ডিকেট ব্যবসায়ীদের নিয়ন্ত্রণে সরকার সম্পূর্ণরূপে ব্যর্থ হয়েছে।

“একদিকে দ্রব্যমূল্যের সীমাহীন ঊর্ধ্বগতিতে সাধারণ মানুষ না খেয়ে মরছে। অন্যদিকে দুঃশাসনের দিন কাটাচ্ছে।”

অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন নগর বিএনপির সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী হিন্দু ছাত্র ফোরাম চট্টগ্রাম নগর সভাপতি বিপ্লব চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সুকান্ত তালুকদার জুয়েলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন নগর বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক এম এ আজিজ, যুগ্ম আহবায়ক এসএম সাইফুল আলম, ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, আব্দুল হালিম শাহ আলম ও আব্দুল মান্নান, সদস্য কামরুল ইসলাম প্রমুখ।