‘কভার্ড ভ্যানের’ কাগজ চুরি: আরেক সদস্য গ্রেপ্তার

চট্টগ্রামে কভার্ড ভ্যানসহ পণ্যবাহী গাড়ির কাগজপত্র চুরির সঙ্গে জড়িত একটি ‘চক্রের’ এক সদস্যকে গ্রেপ্তারের প্রায় দুই মাসের মাথায় আরও একজনকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

গ্রেপ্তার সাইফুল ইসলাম ওরফে রাজু (৩৪) নগরীর শান্তিবাগ শ্যামলী আবাসিক এলাকায় থাকেন। তার বাড়ি নোয়াখালীর কবির হাট উপজেলায়।

হালিশহর থানার শান্তিনগর এলাকা থেকে সোমবার রাতে রাজুকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানান নগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (বন্দর) নোবেল চাকমা।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, “রাজু বিভিন্ন কন্টেইনার ডিপোতে থাকা গাড়ির কাগজ চুরি করে মালিককে ফোন করে টাকা দাবি করত। টাকা পেলে কাগজ ফিরিয়ে দিত, অন্যথায় নষ্ট করে ফেলত।”

ওঁৎ পেতে গাড়ির কাগজ চুরি, পরে ফোন করে টাকা দাবি  

চট্টগ্রামের পতেঙ্গা থেকে কুমিরা পর্যন্ত মোট ১৮টি কন্টেইনার ডিপো রয়েছে, যেগুলোতে প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে কয়েক হাজার ট্রাক, কভার্ড ভ্যান, প্রাইম মুভার আসা যাওয়া করে।

পুলিশ কর্মকর্তা জানান, এর আগে গত বছর নভেম্বরে কাপজপত্র চুরির কাজে তার সঙ্গে থাকা মো. ইয়াছিন নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হলেও রাজু পলাতক ছিলেন।

রাজুকে জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া তথ্য তুলে ধরে তিনি বলেন, “আগে তিনি কভার্ড ভ্যানের চালক ছিলেন। ২০১০ সাল থেকে আজিম নামে এক ব্যক্তির সঙ্গে গাড়ির কাগজপত্র চুরি শুরু করেন।

“পরে তিনি আজিমের কাছ থেকে সরে গিয়ে ইয়াছিনের সঙ্গে গাড়ির কাগজ চুরি করা শুরু করে। আবার বিভিন্ন সময় নিজে একাই গাড়ির কাগজপত্র চুরি করেন।”

তবে গত ১২ বছরে সে কী পরিমাণ গাড়ির কাগজ চুরি করেছেন তার কোনো হিসাব দিতে পারেননি বলে জানান গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার।

এর আগে নগরীর উত্তর কাট্টলী এলাকা থেকে গত ২৩ নভেম্বর গ্রেপ্তার ইয়াছিন অন্তত ৮০০ গাড়ির কাগজপত্র চুরির কথা গোয়েন্দা পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেন।