ছাত্রলীগের সংঘর্ষের তদন্ত করবে চবি

ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় তদন্তে কমিটি গঠন করেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

বুধবার দুপুরে প্রক্টোরিয়াল বডির সভা শেষে এ কমিটি গঠন করা হয় বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর ড. শহীদুল ইসলাম জানান।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক রামেন্দু পারিয়ালকে আহ্বায়ক করে গঠিত চার সদস্যের এই কমিটিকে দ্রুততম সময়ের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে অনুরোধ করা হয়েছে।

“ওই প্রতিবেদন অনুসারে দোষীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্খা নেওয়া হবে।”

কমিটির অন্য সদস্যরা হলে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এস এ এম জিয়াউল হক, একই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো: মোরশেদুল আলম ও আইন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হাসান মুহাম্মদ রোমান।

শহীদুল ইসলাম জানান, পরিস্থিতির যেন অবনতি না হয়, সেজন্য ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টেগুলোতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। প্রভোস্ট ও আবাসিক শিক্ষকদের হলগুলোতে সার্বক্ষণিক থাকার সুপারিশ করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণাকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার মধ্যরাতে ছাত্রলীগের বগিভিত্তিক সংগঠন বিজয় ও সিএফসি গ্রুপের কর্মীদের সংঘর্ষে অন্তত ১৩ জন আহত হন।

২০১৯ সালের ১৫ জুলাই রেজাউল হক রুবেলকে সভাপতি ও ইকবাল হোসেন টিপুকে সাধারণ সম্পাদক করে দুই সদস্য কমিটি গঠন করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

১৩ জানুয়ারি কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক হায়দার মোহাম্মদ জিতু এবং উপ-সাংস্কৃতিক সম্পাদক শেখ নাজমুল বিশ্ববিদ্যালয়ে এলে ক্যাম্পাস ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির দাবিতে মূল ফটক অবরোধ করেন নেতা কর্মীরা।

তারপর থেকেই ছাত্রলীগের বগি ভিত্তিক গ্রুপগুলোর মধ্যে উত্তেজনা চলছিল, যা মঙ্গলবার মধ্যরাতে সংঘর্ষে রূপ নেয়।