অনন্ত জলিলের সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের ‘হেনস্তা’

প্রযোজক-চিত্রনায়ক অনন্ত জলিলের সংবাদ সম্মেলনে অংশ নেওয়া কয়েকজন গণমাধ্যমকর্মীকে ‘হেনস্তার’ ঘটনায় তোপের মুখে ‘দুঃখ প্রকাশ’ করেছেন এ অভিনেতা।

শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর লো মেরিডিয়ানে আয়োজিত ‘নেত্রী-দ্য লিডার’ চলচ্চিত্রের মহরতে জাতীয় এক দৈনিকের সংবাদকর্মীসহ বেশ কয়েকজনকে ‘হেনস্তা’ করেছেন অনুষ্ঠানের দায়িত্বরত এক কর্মী।

এক সংবাদকর্মী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, আমন্ত্রণপত্র সঙ্গে না আনায় তাদের ‘হেনস্তা’ করা হয়েছে। অনুষ্ঠানের বাইরে গেলে তাদের ‘দেখে নেওয়ার’র হুমকি দিয়েছেন সেই কর্মী।

এ ঘটনার পর কয়েকজন গণমাধ্যমকর্মী প্রতিবাদ জানালে তোপের মুখে অভিনেতা অনন্ত জলিল সাংবাদিকদের কাছে ‘দুঃখ প্রকাশ’ করেন। ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠানের সেই কর্মীকে অনুষ্ঠানের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে নেন।

অনন্ত জলিল বলেন, “আপনারা ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের লোকদের ওপর রাগ করে চলে যাবেন-এটা হতে পারে না। ওরা ইভেন্টের দায়িত্বে ছিল, ওরা আমাদের পার্টনার নয়, ওরা ছবির মালিকও নয়, প্রোডিউসারও নয়।

“আমি সবচেয়ে বেশি সাংবাদিকদের সম্মান করি। এটা সবাই জানে, অনন্ত কত শ্রদ্ধা করে সাংবাদিকদের। আমি কোনও অনুষ্ঠানে গেলে কখনও আগে বসি না, আগে সাংবাদিকদের সঙ্গে দেখা করি। আমি এতটাই শ্রদ্ধা করি সাংবাদিকদের। একটা ইভেন্ট কোম্পানির জন্য তো আমি দায়ী হতে পারি না।”

আরেক প্রশ্নের মুখে গার্মেন্ট ব্যবসায়ী থেকে প্রযোজক-চিত্রনায়ক বনে যাওয়া জলিল বলেন, “ভবিষ্যতে এই কোম্পানি (ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট) আর কাজ পাবে কি না, ইউ গাইজ আর নো'জ। আমরা অনুষ্ঠান করতেছি এটার নামই হলো-প্রেস কনফারেন্স ইনক্লুডিং ওপেনিং সেরেমোনি। এখানে ওই কোম্পানি যদি খারাপ করে থাকে ভবিষ্যতে তারা কাজ পাবে কি না, আই ডোন্ট নো, এটা আপনারাই ভালো বলতে পারবেন।“

“….আজকে যদি আমি খারাপ ব্যবহার করি, অন্তত সাংবাদিকদের সাথে খারাপ ব্যবহার করি তাহলে ভবিষ্যতে সিনেমাই করবো না।”

সংবাদ সম্মেলনে অনন্ত জলিল ছাড়াও বেশ কয়েকজন বিদেশি নির্মাতা-অভিনয়শিল্পী উপস্থিত ছিলেন; তাদের মধ্যে ছিলেন ছবির ভারতীয় নির্মাতা উপেন্দ্র মাধব, অভিনেতা কবির দুহান সিং, তরুণ অরোরা,তরুণ অরোরা, প্রদীপ রাওয়াত।