খাদ্যাভ্যাস যেভাবে তারুণ্য ধরে রাখতে পারে

নিজের বয়সের চাইতেও দশ বছর কম দেখাতে চাইলে খাদ্যাভ্যাসে পরিবর্তন আনতে হবে।

পুষ্টিবিদেরা মনে করেন খাদ্যাভ্যাস ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আর খাদ্যতালিকায় সঠিক খাবারগুলো রাখতে পারলে ত্বকের পড়বে ইতিবাচক প্রভাব।

উদ্ভিজ্জ প্রোটিন খাবার

উদ্ভিজ্জ প্রোটিন কেবল পেশি সুগঠিত করে না বরং তারুণ্য ধরে রাখতেও সহায়ক।

যুক্তরাষ্ট্রের ‘দ্যা টোয়েন্টিওয়ান ডে বডি রিবুট’য়ের প্রতিষ্ঠাতা মেডিকেল এক্সপার্ট বোর্ডের সদস্য ও ‘দি নিউট্রিশন টুইন্স’ হিসেবে খ্যাত ল্যাসি লাকাটোস এবং টামি লাকাটোস শামস ইটদিস ডটকম’য়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলেন, “প্রোটিন কোষ গঠন ও পুনর্গঠনে সহায়ক। এছাড়াও এটা কোলাজেনের গুরুত্বপূর্ণ উপাদান যা ত্বককে স্থিতিস্থাপক, টানটান এবং তারুণ্যময় করতে সহায়তা করে।”

নিউ ইয়র্ক’য়ের নিবন্ধিত পুষ্টিবিদ এবং ‘কিচেনভেইল ডটকম’য়ের প্রতিষ্ঠাতা মিশেল রাইট ব্যাখ্যা করে বলেন, “কোলাজেন দেহে প্রাকৃতিকভাবে তৈরি হয় ও ভেঙে যায়। আর এটা বয়সের ছাপ ফুটে ওঠায় ভূমিকা রাখে। প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া কোলাজেনের মাত্রা বাড়ায় এবং ত্বক তারুণ্যময় করে তোলে।”

উদ্ভিজ্জ প্রোটিনে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকায় তা ত্বক সুস্থ রাখে। যেখানে প্রাণিজ প্রোটিন ত্বকে প্রদাহ বাড়ায়। এতে থাকা স্যাচুরেইটেড চর্বি ত্বকে ক্ষয় সৃষ্টি করতে পারে।

উদ্ভিজ্জ প্রোটিন যেমন- পেস্তা বাদামে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা ত্বকের প্রদাহ কমায় ও তারুণ্য বজায় রাখে বলে জানান, ল্যাসি ও ট্যামি।

টমেটো খাওয়া

প্রতিদিন টমেটো খাওয়া ত্বকের জন্য উপকারী।

‘মাস্টার দ্য মিডিয়া’র প্রতিষ্ঠাতা ও নিবন্ধিত পুষ্টিবিদ এমি গরিন বলেন, “লাল টমেটোতে থাকা লাইকোপেন নামক অ্যান্টিঅক্সিউডেন্ট ত্বককে সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি থেকে সুরক্ষিত রাখে। টমেটোর তৈরি যে কোনো খাবার থেকেই এই উপকারিতা পাওয়া যায়।”

‘ব্রিটিশ জার্নাল অব ডার্মাটোলজি’তে দৈনিক ৫৫ গ্রাম (প্রায় দুই আউন্স) টমেটোর পেস্ট প্রায় তিন মাস ধরে নিয়মিত খাচ্ছেন এমন ২০ জন সুস্থ নারীর ওপর করা সমীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়।

দেখা গেছে, টমেটো খাওয়া সূর্যের কারণে হওয়া ক্ষয় কমায় এবং দীর্ঘমেয়াদে সুরক্ষা দেয়। 

খাঁটি জলপাইয়ের তেল

“খাঁটি জলপাইয়ের তেল টোকোফেরল, বিটা ক্যারোটিন এবং ফেনোলিক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যৌগে ভরপুর যা উন্মুক্ত রেডিকেলের কারণে হওয়া অক্সিডেটিভ চাপ কমায় এবং ত্বকের স্থিতিস্থাপকতা বাড়ায় ফলে দেখতে তরুণ লাগে,” বলেন ‘দ্য নিউট্রিশন টুইন্স’।

তাদের মতে, “জলপাইয়ের তেল ৭৩ শতাংশ মনোআনস্যাচুরেইটেড চর্বি দিয়ে তৈরি। গবেষণায় দেখা গেছে এটা ত্বকের বয়সের ছাপ কমায়। জলপাইয়ের তেল সুর্যের আলো থেকেও ত্বক সুরক্ষিত রাখে।”

প্রক্রিয়াজাত তেল যেমন- সয়াবিন, ভুট্টা বা ক্যানোলার পরিবর্তে জলপাই তেল খাওয়া উপকারী। এছাড়াও সালাদ ড্রেসিং, সস বা খাবার মেরিনেইট করে রাখতেও এই তেল ব্যবহার করা যায়।

দিনে অন্তত ৫টি আলুবোখারা খাওয়া

ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখতে আলুবোখারা উপকারী। এতে আছে বোরন, পটাশিয়াম, ভিটামিন কে এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ ফেনোলিক যৌগ, যা ত্বক ও হাঁড়ের সুস্থতা বজায় রাখে,” বলেন দ্য নিউট্রিশন টুইন্স।

তাদের মতে, “শক্ত, মজবুত সুস্থ হাড় পেশি সুগঠিত রাখে এবং বয়সের ছাপ কম ফুটে ওঠে।”

তাই তারুণ্য ধরে রাখতে প্রক্রিয়াজাত, চিনিযুক্ত খাবার বাদ দিয়ে কয়েকটা আলুবোখারা খাওয়া যেতে পারে। এটা ক্ষুধা মেটানোর পাশাপাশি ত্বক ভালো রাখতেও সহায়তা করবে। 

সপ্তাহে একদিন চর্বিযুক্ত মাছ

মিশেল রাইট বলেন, “স্যামনের মতো চর্বিযুক্ত মাছ ত্বকের বয়স ধরে রাখে।”

তিনি আরও বলেন, “ওমেগা-থ্রি চর্বি ত্বকের প্রদাহ কমায়। চর্বিবহুল মাছে রয়েছে প্রচুর প্রোটিন যা ত্বকের কোলাজেন ও স্থিতিস্থপকতা বাড়ায়। তাই ত্বক টানটান ও মসৃণ রাখতে চর্বিবহুল মাছ খাওয়া জরুরি।”

ছবি: রয়টার্স।

 

আরও পড়ুন

যেসব খাদ্যাভ্যাসে বয়সের ছাপ বাড়ে  

খাদ্যাভ্যাস হতে পারে পেশিক্ষয়ের কারণ  

স্মৃতিশক্তির ওপর খাদ্যাভ্যাসের প্রভাব  

কিছু খাদ্যাভ্যাস যা ক্ষতিকর