কেরালায় নামতে গিয়ে উড়োজাহাজ দু’টুকরো, নিহত অন্তত ১৭

দুবাই থেকে ১৯০ জন আরোহী নিয়ে ভারতের কেরালায় নামার সময় রানওয়েতে ছিটকে পড়ে এয়ার ইনডিয়া এক্সপ্রেসের একটি উড়োজাহাজের অন্তত ১৭ যাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। আরও শতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম বলছে, শুক্রবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টা ৪০ মিনিটে কেরালার কালিকট (কোঝিকোড়) বিমানবন্দরে অবতরণের সময় ফ্লাইট আইএক্স ১৩৪৪ দুর্ঘটনায় পড়ে।

রয়টার্স জানিয়েছে, করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে দুবাইয়ে আটকা পড়া ভারতীয়দের নিয়ে ফিরছিল বোয়িং ৭৩৭ উড়োজাহাজটি। প্রবল বৃষ্টির মধ্যে অবতরণের সময় রানওয়েতে ছিটকে পড়ে সেটি দুই টুকরো হয়ে যায়।

ভারতের সিভিল অ্যাভিয়েশন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ১০ জন শিশুসহ মোট ১৮৪ জন যাত্রী ছিলেন ওই উড়োজাহাজে। ফ্লাইট পরিচালনায় ছিলেন দুইজন পাইলট ও চারজন কেবিন ক্রু।

কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে এনডিটিভি জানিয়েছে, দুর্ঘটনায় উড়োজাহাজটির দুই পাইলটেরও মৃত্যু হয়েছে। ভেতর থেকে আরোহীদের সবাইকে বের করে আনা হয়েছে।

কেরালার মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তর জানিয়েছে, এই দুর্ঘটনায় ১৭ জনের প্রাণহানির পাশাপাশি আহত ১৭৩ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সিভিল অ্যাভিয়েশনের মহাপরিচালক এক বিবৃতিতে বলেছেন, প্রবল বৃষ্টির কারণেই এ দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছেন তারা। 

টেলিভিশনের ভিডিওতে দেখা যায়, উড়োজাহাজের দুটি অংশ দুই দিকে পড়ে আছে, চারদিকে ছড়িয়ে আছে টুকরো অংশ। উদ্ধারকর্মীরা প্রবল বৃষ্টির মধ্যে সেই ধ্বংসস্তূপ থেকে আরোহীদের বের করে আনার চেষ্টা করছেন। 

ফ্লাইট ট্র্যাকিং ওয়েবসাইট ফ্লাইটরেডার টোয়েন্টিফোর জানিয়েছে, বিমানবন্দরে নামার আগে পাইলট আকাশে কয়েক দফা চক্কর দেন এবং রানওয়েতে নামার জন্য দুই দফা চেষ্টা করেন। 

ভারতের বেসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরি বলেছেন, চাকা পিছলে উড়োজাহাজটি রানওয়ে থেকে বেরিয়ে যায় এবং ৩৫ ফুট ঢালু জমি পেরিয়ে বিমানের নাক মাটির সঙ্গে ধাক্কা খায়।

তবে দুর্ঘটনার পর উড়োজাহাজে আগুন না ধরায় আরও অনেক প্রাণহানি এড়ানো গেছে।

''