ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত

বিশ্বজুড়ে মহামারী সৃষ্টি করা নতুন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়।

সোমবার বিকালে এক টুইটে তিনি নিজেই পরীক্ষায় করোনাভাইরাস পজিটিভ আসার কথা জানিয়েছেন।

ভারতীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনগুলোতে প্রণবের টুইটের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, অন্য একটি কারণে হাসপাতালে যাওয়ার পর তার কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা হয়েছিল, সোমবার ওই পরীক্ষার প্রতিবেদন দেওয়া হয়েছে, তাতে তার দেহে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে।

গত এক সপ্তাহে যারা যারা তার সংস্পর্শে এসেছিলেন পূর্বসতর্কতা হিসেবে তাদের আইসোলেশনে থাকার ও কোভিড-১৯ পরীক্ষার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

২০১২ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ভারতের প্রেসিডেন্ট ছিলেন তিনি। ছয় বছর আগে হৃদযন্ত্রে ব্লক ধরা পড়ার পর থেকে নিয়মিত চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে আছেন তিনি।

নিয়মিত শারীরিক পরীক্ষার জন্যই হাসপাতালে গিয়েছিলেন তিনি। তখন সেখানেই তার করোনাভাইরাস পরীক্ষা করা হয়েছিল বলে জানিয়েছে আনন্দবাজার পত্রিকা।

৮৪ বছর বয়সী সাবেক রাষ্ট্রপতি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন, তার টুইটের মাধ্যমে একথা জানার পর ভারতের রাজনৈতিক মহলে উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়ে। কিছুক্ষণের মধ্যেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বহু ব্যবহারকারী তার আরোগ্য কামনা করে পোস্ট করেন। 

তার আশু রোগমুক্তি কামনা করে টুইট করেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল, ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পিযুষ গৈয়াল, দিল্লি কংগ্রেসের সাবেক প্রধান অজয় মাকেনসহ অনেকে। 

জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্যানুযায়ী, সোমবার বাংলাদেশের স্থানীয় সময় দুপুর পর্যন্ত ভারতে মোট শনাক্ত কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা ২২ লাখ ১৫ হাজার ৭৪ জন ছিল। আক্রান্তের সংখ্যায় যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিলের পর বিশ্বে তৃতীয় স্থানে থাকা ভারতে প্রাণঘাতী এ রোগে ৪৪ হাজার ৩৮৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।

প্রণব মুখোপাধ্যায় ছাড়াও এ পর্যন্ত ভারতের বেশ কয়েকজন শীর্ষ রাজনীতিক চীন থেকে বিশ্বজুড়ে ছড়ানো এ ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ্, মধ্য প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান, কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়াদুরাপ্পা, কংগ্রেস নেতা সিদ্ধারামাইয়াহ অন্যতম।