টেলিভিশনে নারী উপস্থাপকদের মুখ ঢাকার নির্দেশ তালেবানের

শুধু মাথা ঢাকলে হবে না, মুখও ঢাকতে হবে। আফগানিস্তানে টেলিভিশনের নারী উপস্থাপকদের জন্য এবার এ নির্দেশ জারি করেছে তালেবান।

বুধবার এ সংক্রান্ত একটি ডিক্রি জারি করে তা দেশটির সংবাদ মাধ্যমগুলোকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে বিবিসিকে জানান আফগান ধর্মীয় পুলিশের একজন মুখপাত্র।

মাত্র দুই সপ্তাহ আগে দেয়া এক ফতোয়ায় তালেবান সব আফগান নারীদের জনসম্মুখে মুখ ঢেকে রাখার আদেশ জারি করে। সেখানে আদেশ অমান্যকারীদের জন্য শাস্তির কথাও বলা আছে।

সম্প্রতি আফগান নারীদের উপর একের পর এক নিষেধাজ্ঞা জারি করে যাচ্ছে তালেবান প্রশাসন। অথচ, গত বছর অগাস্টে পুনরায় ক্ষমতায় আসার পর তারা বলেছিল, এবার তারা নারীদের উপর আগের মত কঠোর ফতোয়া জারি করবে না।

কিন্তু দ্রুতই তারা তাদের সেই অবস্থান থেকে সরে আসে। শুরুতেই নারীদের শিক্ষাগ্রহণের অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়। তালেবান প্রশাসন আফগান মেয়েদের জন্য শুধু প্রাথমিক শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ রেখেছে। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে দেশটির সব মাধ্যমিক স্কুল।

মেয়েরা এমনকি পুরুষ অভিভাবক ছাড়া ভ্রমণও করতে পারবে না। যা নিয়ে তুমুল সমালোচনা হয়েছে।

বুধবার জারি করা নতুন ডিক্রি নিয়েও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

টুইটারে একজন লেখেন, ‘‘বিশ্ব (মানুষকে) কোভিডের হাত থেকে সুরক্ষা দিকে মাস্ক পরতে বলেছে। আর তালেবান নারী সাংবাদিকদের মুখ দেখা থেকে লোকজনকে সুরক্ষা দিতে মাস্ক পরতে বলছে। তালেবানের জন্য নারীরাই একটি রোগ।”

এর প্রতিবাদ জানিয়ে আফগানিস্তানের বেসরকারি নিউজ চ্যানেল শামশাদ টিভি তাদের একজন নারী সংবাদ উপস্থাপকের মাস্ক পরা ছবি পোস্ট করেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ওই রকম আরো ছবি পোস্ট করা হচ্ছে।

''