৮ মাসেই মুদ্রার উল্টো পিঠ দেখলেন আর্জেন্টিনার ক্রেসপো

এরনান ক্রেসপো। ফাইল ছবি
স্বদেশের অখ্যাত এক ক্লাবকে মহাদেশীয় শিরোপা জিতিয়ে কোচ হিসেবে আলোচনায় উঠে আসা এরনান ক্রেসপোর অল্প দিনেই হলো তিক্ত অভিজ্ঞতা। অনেক প্রত্যাশা নিয়ে সাও পাওলোর দায়িত্ব নিলেও ব্যর্থতার দায়ে টিকতে পারলেন না এক বছরও।

ব্রাজিলের ক্লাবটির সঙ্গে ‘পারস্পরিক সমঝোতার’ ভিত্তিতে দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন এক সময়ের তারকা ফরোয়ার্ড ক্রেসপো।

২০১৪ সালে প্রথম সারির ফুটবলে উঠে আসা আর্জেন্টিনার ক্লাব দেফেন্সা ইয়া জাস্তিসিয়ার দায়িত্ব নেওয়ার এক বছরের কম সময়ে দলটিকে কোপা সুদামেরিকানা শিরোপা জেতান ক্রেসপো। গত জানুয়ারিতে অসাধারণ ওই সাফল্যের পর তিনি যোগ দেন সাও পাওলোয়।

ব্রাজিলের ক্লাবটিতে শুরুটা দারুণ হয় ক্রেসপোর। দায়িত্ব নেওয়ার তিন মাসের মাথায় গত মে মাসে তিনি ক্লাবটিকে জেতান স্টেট চ্যাম্পিয়নশিপ, ২০০৫ সালের পর যা তাদের প্রথম।

কিন্তু ব্রাজিলের লিগ সেরি আর এবারের আসরে ভীষণ ভুগছে ক্লাবটি; ২০ দলের প্রতিযোগিতায় ২৫ ম্যাচে মাত্র ছয়টিতে জিতে ১৩ নম্বরে আছে তারা। এই হতশ্রী পারফরম্যান্সের দায়ে চুক্তি দুই বছরের হলেও আট মাসের মধ্যেই চলে যেতে হলো ৪৬ বছর বয়সী ক্রেসপোকে।

ব্রাজিলের ক্লাবগুলোয় কোচ ছাঁটাইয়ের ঘটনা হরহামেশা ঘটে থাকে। কিছু দলের তো মৌসুমে চার জন কোচ পরিবর্তনেরও নজির আছে। এতে রাশ টানতেই গত বছর ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন নিয়ম করে, প্রতি মৌসুমে কোনো ক্লাব সর্বোচ্চ একজন কোচকে ছাঁটাই করতে পারবে।

তবে বোর্ডের এই নিয়মে ফাঁকও আছে। কোচ ও ক্লাব যদি ‘পারস্পরিক সমঝোতায়’ চুক্তি ভঙ্গ করে, সেক্ষেত্রে তা একাধিকবার ঘটলেও বোর্ডের আইনের লঙ্ঘন হয় না। আর এই ফাঁক গলেই পুরনো সমস্যা সেখানে রয়েই গেছে।