পর্তুগাল নাকি ইতালি, বিশ্বকাপে যাবে কে?

রাশিয়া বিশ্বকাপে উঠতে ব্যর্থ হওয়া ইতালিকে কাতার বিশ্বকাপে দেখা যাবে কি? জবাবটা হ্যাঁ হলে আসছে বিশ্বকাপে থাকবে না পর্তুগাল। ইউরোপ অঞ্চলের বাছাইয়ে নতুন ধারার প্লে-অফ এমনই কঠিন চ্যালেঞ্জে ফেলে দিয়েছে দল দুটিকে।

১২ দলের প্লে-অফ পেরিয়ে এই দুই দলের যে কোনো একটিই উঠতে পারবে ২০২২ সালের বিশ্বকাপে।

‘সেমি-ফাইনাল’ নামের প্লে-অফের প্রথম ধাপে ‘সি’ গ্রুপে তুরস্ককে প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়েছে পর্তুগাল আর ইতালি খেলবে নর্থ মেসিডোনিয়ার বিপক্ষে।

এই দুই সেমি-ফাইনালের জয়ী দল মুখোমুখি হবে ফাইনালে। তাদের মধ্যে বিজয়ীরা পাবে বিশ্বকাপের টিকেট।

কদিন আগে শেষ হওয়া ইউরোপ অঞ্চলের বাছাইয়ে ১০ গ্রুপের শীর্ষ ১০ দল সরাসরি পেয়েছে কাতার বিশ্বকাপের টিকেট। ১০ গ্রুপের রানার্সআপ ও নেশন্স লিগের সেরা দুই গ্রুপ জয়ী মিলে ১২ দলের প্লে-অফে ইউরোপ থেকে আরও তিনটি দল সুযোগ পাবে বিশ্বকাপে খেলার।

প্লে-অফের ড্র অনুষ্ঠিত হয় শুক্রবার। এক লেগের সেমি-ফাইনালে ‘এ’ গ্রুপে মুখোমুখি হবে স্কটল্যান্ড ও ইউক্রেন এবং ওয়েলস ও অস্ট্রিয়া।

‘বি’ গ্রুপে রাশিয়া খেলবে পোল্যান্ডের বিপক্ষে, আর সুইডেনের প্রতিপক্ষ চেক রিপাবলিক। অস্ট্রিয়া ও চেক রিপাবলিক এসেছে নেশন্স লিগে গ্রুপ জয়ী হিসেবে।   

প্রতি গ্রুপের সেমি-ফাইনালে জয়ী দুই দল মুখোমুখি হবে ফাইনালে। তিন গ্রুপের ফাইনালে জয়ী তিনটি দল পাবে বিশ্বকাপের টিকেট।

আগামী বছরের ২৪ থেকে ২৯ মার্চ সময়ের মধ্যে হবে প্লে-অফের ম্যাচগুলো।

নিশ্চিতভাবে সবার চোখ থাকবে ইতালি ও পর্তুগালের দিকেই। ইতালি এই বছর জিতেছে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ। প্রতিযোগিতাটির ২০১৬ সালের চ্যাম্পিয়ন পর্তুগাল। সেমি-ফাইনালে দুই দলই খেলবে নিজেদের মাঠে। ফাইনালে গেলেও ঘরের মাঠে খেলার সুবিধা পাবে পর্তুগাল।

চারবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ইতালি ব্যর্থ হয়েছিল ২০১৮ বিশ্বকাপে উঠতে, ৬০ বছরের মধ্যে যা তাদের প্রথম। এবারও তাদের সামনে কঠিন পথ, মানছেন কোচ রবের্তো মানচিনি।

“আমরা খুব কঠিন গ্রুপে পড়েছি। নর্থ মেসিডোনিয়া খুব ভালো দল এবং সেখানে জিতলে প্রতিপক্ষের মাঠে খেলতে হবে আমাদের।”

পর্তুগাল কাতার বিশ্বকাপে উঠতে ব্যর্থ হলে ৩৬ বছর বয়সী ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো হয়তো তার শেষ বিশ্বকাপটা খেলে ফেলেছেন। 

‘বি’ গ্রুপের সেমি-ফাইনালে নিজেদের ম্যাচে জিতলে ফাইনালে মুখোমুখি হবে রবের্ত লেভানদোভস্কির পোল্যান্ড ও জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচের সুইডেন।