বক্সিংয়ের সেরা সেনাবাহিনী

দলগত সেরার লড়াইয়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও বাংলাদেশ আনসারের মধ্যে লড়াই হলো জমজামট। আনসারকে পেছনে ফেলে সেরা হয়েছে সেনাবাহিনী।

পল্টনের মুহম্মদ আলী বক্সিং স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু ৩০তম পুরুষ ও ৬ষ্ঠ মহিলা জাতীয় সিনিয়র বক্সিং প্রতিযোগিতার শেষ দিনের ইভেন্টগুলো অনুষ্ঠিত হয়। সব মিলিয়ে ৯টি সোনা, চারটি করে রুপা ও ব্রোঞ্জ নিয়ে সেরা হয়েছে সেনাবাহিনী। রানার্সআপ হওয়া আনসারের বক্সাররা জিতেছেন ৮টি সোনা, ৭টি রুপা ও ২টি ব্রোঞ্জ।

এবার পুরুষ বিভাগে ১৩টি ও মহিলা বিভাগে ৬টি মিলিয়ে মোট ১৯টি ওজন শ্রেণিতে সম মিলিয়ে ১৮১ জন বক্সার অংশ নেন। এদের মধ্যে ১৫১ জন ছিলেন পুরুষ বক্সার এবং ৩০ জন ছিলেন মহিলা বক্সার।

মেয়েদের ৪৮ কেজি ওজন শ্রেণিতে বিকেএসপির জান্নাতুল ফেরদৌস সোনা জিতেন। ৫০ কেজিতে কায়মা খাতুন, ৫২ কেজিতে শাহারা ইয়াসমিন, ৫৪ কেজিতে মেহেজাবিন আরা যমুনা, ৫৭ কেজিতে অনিতা ইসলাম সেনাবাহিনীকে সোনার পদক এনে দেন। ৬০ কেজিতে সেরা হন আনসারের সাকী আক্তার।

পুরুষ বিভাগে ৭টি বিভাগে সোনা জিতে আনসারের বক্সাররা। ৪৮ কেজিতে সজীব হোসেন, ৫১ কেজিতে আবু তালহা, ৬০ কেজিতে সুর কৃষ্ণ চাকমা, ৬৩.৫ কেজিতে রাকিব শেখ, ৬৭ কেজিতে আল আমিন, ৭৫ কেজিতে আরীফ হোসেন ও ৮০ কেজিতে সেরা হন জুয়েল আহমেদ জনি।

সেনাবাহিনীর বক্সাররা পুরুষ বিভাগে জিতে পাঁচটি সোনা। ৫৪ কেজিতে রুহিন রেজা, ৫৭ কেজিতে সেলিম হোসেন, ৭১ কেজিতে আব্দুর রহিম, ৮৬ কেজিতে শুভ কুমার ভাদুরি, ৯২ কেজি প্লাস কেজিতে সোনা জিতেন মেহেদি হাসান। ৯২ কেজিতে সেরা হন বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শাহরিয়ার শান্ত।