সমর্থকদের উৎসবের প্রস্তুতি নিতে বললেন গুয়ার্দিওলা

ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেডের বিপক্ষে পয়েন্ট হারালেও প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা ভাগ্য ম্যানচেস্টার সিটির হাতেই আছে। যদিও তাদের জয় হাতছাড়া হওয়াটা লিভারপুল সমর্থকের জন্য দারুণ প্রশান্তির। সিটি কোচ পেপ গুয়ার্দিওলা অবশ্য নির্ভারই আছেন। অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে শেষ রাউন্ডে সমর্থকদের শিরোপা উদযাপনের প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে বললেন এই স্প্যানিশ কোচ।

ওয়েস্ট হ্যামের মাঠে রোববার প্রথমার্ধেই দুই গোলে পিছিয়ে পড়ার পর ঘুরে দাঁড়িয়ে ২-২ ড্র করে সিটি।

জ্যারড বোয়েনের জোড়া গোলের পর দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ব্যবধান কমান জ্যাক গ্রিলিশ। পরে ওয়েস্ট হ্যামের ভ্লাদিমির চৌফালের আত্মঘাতী গোলে সমতায় ফেরে দলটি। শেষ দিকে সিটির জয়ের সম্ভাবনা জাগলেও রিয়াদ মাহরেজ পেনাল্টি মিস করায় তা আর হয়নি।

এই ড্রয়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকা লিভারপুলের চেয়ে ৪ পয়েন্ট এগিয়ে গেছে সিটি। মঙ্গলবার সাউথ্যাম্পটনের মাঠে লিভারপুল হেরে গেলে এক ম্যাচ হাতে রেখেই শিরোপা নিশ্চিত হয়ে যাবে তাদের।

আর লিভারপুল জিতলে দুই দলের পয়েন্টের ব্যবধান হবে এক। সেক্ষেত্রে শেষ রাউন্ডে জয় পেলেই শিরোপা ধরে রাখবে সিটি। তবে হেরে গেলে লিভারপুলের সামনে খুলে যাবে দুয়ার।

শেষ রাউন্ডে লিভারপুল খেলবে উলভারহ্যাম্পটন ওয়ানডারার্সের বিপক্ষে।

গুয়ার্দিওলা অবশ্য কোনো চাপ অনুভব করছেন না। ম্যাচ শেষে তার কণ্ঠে ফুটে উঠল আত্মবিশ্বাসের ছোঁয়া।

“আমি ওই দিন ম্যানচেস্টোরের সবাইকে, সব নীল সমর্থকদের রাস্তায় যেতে, স্টেডিয়ামে যেতে উৎসাহিত করব। কারণ, আমরা প্রিমিয়ার লিগ জয়ের জন্য সর্বোচ্চটা দিতে যাচ্ছি। এ বিষয়ে আমি নিশ্চিত।”

গত এক দশকে লিগের বেশ কয়েকটি আসরের শিরোপা লড়াই শেষ দিনে নিয়ে গেছে সিটি। গুয়ার্দিওলার মতে, লিভারপুলের মতো প্রতিদ্বন্দ্বী থাকলে কয়েক রাউন্ড হাতে থাকতে শিরোপা জেতা খুবই কঠিন।

“এই লিভারপুলের বিপক্ষে চার ম্যাচ আগে লিগ জেতা যাবে না। শেষ পর্যন্ত লড়াই করতে হবে। আমাদের জন্য বড় সুবিধা হলো, আমাদের শেষ ম্যাচটা ঘরের মাঠে এবং শিরোপার ভাগ্য আমাদের হাতে।”

সাউথ্যাম্পটনের বিপক্ষে লিভারপুলের হারই কামনা করছেন গুয়ার্দিওলা। সাউথ্যাম্পটনের প্রতি তার বার্তা, ‘৪-০ গোলে লিভারপুলকে হারাও’। ব্যবধান যাই হোক না কেন, লিভারপুল হারলেই চাওয়া পূরণ হবে সিটির, তখন অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন হিসেবে মাঠে নামবে দলটি।