দুই গোল খেয়ে ঘাবড়ে গিয়েছিল সিটি

একটু একটু করে ঘনিয়ে আসছিল ম্যাচ শেষের সময়। অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে দুই গোলে পিছিয়ে থাকা ম্যানচেস্টার সিটির সামনে চোখ রাঙাচ্ছিল পরাজয়। ফিকে হয়ে যাচ্ছিল শিরোপা জয়ের আশাও। সেখান থেকে অসাধারণ প্রত্যাবর্তনের গল্প লিখে প্রিমিয়ার লিগের ট্রফি ধরে রাখে পেপ গুয়ার্দিওলার দল। দলটির তারকা মিডফিল্ডার কেভিন ডে ব্রুইনে বললেন, পিছিয়ে থাকা অবস্থায় হারের শঙ্কায় উদ্বিগ্ন ছিলেন তারা।

ইতিহাদ স্টেডিয়ামে রোববার প্রিমিয়ার লিগের শেষ রাউন্ডে রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে ৩-২ গোলে জিতে টানা দ্বিতীয়বারের মতো চ্যাম্পিয়ন হয়েছে সিটি। তাদের চেয়ে ১ পয়েন্ট কম নিয়ে রানার্সআপ হয়েছে লিভারপুল।

সিটির জন্য কাজটা সহজ ছিল না মোটেও। ম্যাচের ৭৫ মিনিট পর্যন্ত তারা পিছিয়ে ছিল ২-০ গোলে, একই সময়ে শুরু হওয়া অন্য ম্যাচে উলভারহ্যাম্পটন ওয়ানডারার্সের বিপক্ষে তখন ১-১ সমতায় লিভারপুল।

সেখান থেকেই ঘুরে দাঁড়ানোর শুরু সিটির। পাঁচ মিনিটের মধ্যে তিন গোল করে শিরোপা উঁচিয়ে ধরে ম্যানচেস্টারের ক্লাবটি। নিজেদের ম্যাচে ৩-১ গোলে জিতেও দুইয়ে থেকে সন্তুষ্ট থাকতে হয় লিভারপুলকে।

ডে ব্রুইনে মনে করেন, নিজেদের ওপর বিশ্বাস ছিল বলেই শেষ পর্যন্ত বিজয়ীর বেশে মাঠ ছাড়তে পেরেছেন তারা।

“আমরা হয়তো কয়েকবার ঘাবড়ে গিয়েছিলাম, এমন পরিস্থিতিতে এটাই স্বাভাবিক। তবে আমরা যতটা সম্ভব শান্ত থাকার চেষ্টা করেছিলাম, কিন্তু কখনও কখনও এটি কিছুটা উদ্বেগের ছিল।”

“স্কোরলাইন ২-১ হওয়াটা পুরো পরিস্থিতি বদলে দিয়েছিল। স্টেডিয়াম, পরিবেশ, খেলোয়াড়দের মনোভাব বদলে গিয়েছিল। সেখান থেকে আমরা কখনও পেছনে ফিরে তাকাইনি।”