ব্যাংকগুলোকে বিএসইসির চিঠি

ফাইল ছবি
পুঁজিবাজারে তারল্য বাড়াতে বিনিয়োগের যে বিশেষ সুযোগ দেওয়া হয়েছিল, তার অগ্রগতি জানতে চেয়ে তালিকাভুক্ত ৩০টি ব্যাংককে চিঠি দিয়েছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি।

বিএসইসির মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক সাইফুর রহমান মঙ্গলবার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে এই তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, “পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ৩০টি ব্যংকের কাছে, বিএসইসির পক্ষ থেকে জানতে চাওয়া হয়েছে, যে সরকারের দেওয়া বিশেষ সুযোগের আওতায় তারা এই পর্যন্ত  পুঁজিবাজারে কত টাকা বিনিয়োগ করেছে।”

ব্যাংকগুলোকে সাত দিনে র মধ্যে এ তথ্য জানাতে বলা হয়েছে।

গত ১০ ফেব্রুয়ারি পুঁজিবাজার চাঙ্গা করতে দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনার আওতায় ব্যাংকগুলোকে বিশেষ তারল্য সুবিধা ও নীতিসহায়তা দেওয়ার ঘোষণা দেয় সরকার।

তাতে বলা হয়, কোনো ব্যাংক তার নির্ধারিত সীমার বাইরেও পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের জন্য ২০০ কোটি টাকার ‘বিশেষ তহবিল’ গঠন করতে পারবে।

ব্যাংক কোম্পানি আইন অনুযায়ী, ব্যাংকগুলো রেগুলেটরি মূলধনের ২৫ শতাংশ পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করতে পারে।

ব্যাংকের এ বিনিয়োগসীমার মধ্যে ব্যাংকের ধারণ করা সব ধরনের শেয়ার, ডিবেঞ্চার, করপোরেট বন্ড, মিউচুয়াল ফান্ড ইউনিট ও অন্যান্য পুঁজিবাজার নির্দেশনাপত্রের বাজারমূল্য ধরে মোট বিনিয়োগ হিসাব করা হয়।

২০০ কোটি টাকার যে ‘বিশেষ তহবিল’ গঠনের সুযোগ এখন দেওয়া হয়েছে তা এই বিনিয়োগ সীমার বাইরে থাকবে বলে নীতিমালায় বলা আছে।

আইটি পরামর্শক নিচ্ছে বিএসইসি

তথ্য প্রযুক্তি অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য খুব দ্রুত একজন আন্তর্জাতিক পরামর্শক নিয়োগ দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে বিএসইসি।

মঙ্গলবার বিএসইসি চেয়ারম্যান শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম একথা জানান।

তিনি বলেন, “বর্তমানে আমরা বিএসইসির আইটি প্লাটফর্মের উপর বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছি। বিএসইসির সব ক্ষেত্রে আইটি ব্যবহারের অবকাঠামোর জন্য খুবই দ্রুত একজন আন্তর্জাতিক পরামর্শক নিয়োগ দেওয়া হবে। এর মাধ্যমে বিএসইসির সকল অংশীজনের রিপোর্ট প্রদান সহজ করা হবে।”

পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা মঙ্গলবার তাদের অনলাইন প্লাটফর্মে ক্রেডিট রেটিং কোম্পানি এবং সিকিউরিটিজ কাস্টডিয়ানকে যুক্ত করেছে।

এই উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ওই অনুষ্ঠানে যোগ দেন বিএসইসি চেয়ারম্যান।

ক্রেডিট রেটিং কোম্পানি এবং সিকিউরিটিজ কাস্টডিয়ান বিএসইসিতে অনলাইনে যুক্ত হওয়ার ফলে আগের চেয়ে অনেক সহজভাবে কাজ করতে পারবে।

বিএসইসির এই দুই অংশীজন জুলাই থেকে তাদের ত্রৈমাসিক প্রতিবেদন অনলাইনে দাখিল করতে পারবে।