ডিএসইতে বড় পতনে দর কমল ৩০০ কোম্পানির

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ডিএসইতে মঙ্গলবার লেনদেন শুরুর প্রথম পাঁচ মিনিটে প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিন থেকে ৪৩ পয়েন্ট বাড়লেও দিন শেষ হয়েছে ৭৭ পয়েন্ট কমে।

বড় এ পতনের দিনে এ বাজারে ৩০০ কোম্পানি দর হারিয়েছে। ব্যাংক বর্হিভূত আর্থিক খাত ছাড়া সব খাতের শেয়ারের দর নির্বিচারে কমেছে।

বেশ কয়েকদিন থেকে চাঙ্গা বাজারে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ- ডিএসই এর প্রধান সূচক সাত হাজারের মাইল ফলক পেরোনোর পর থেকেই সংশোধনের ইঙ্গিত মিলছিল। বিনিয়োগকারীরা মুনাফা তুলে নেওয়া শুরু করলে সপ্তাহের প্রথম দিন রোববার ৫০ পয়েন্টের বেশি এবং মঙ্গলবার বড় পতনের দেখা মিলল।

এদিন দেশের অপর পুঁজিবাজার চট্টগাম স্টক এক্সচেঞ্জ- সিএসইতেও বড় পতন হয়েছে। এই বাজারের প্রধান সূচক সিএএসপিআই ১৭১ দশমিক ৭০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ২০ হাজার ৮৫৭ দশমিক ৬৬ পয়েন্টে।

মঙ্গলবার ডিএসইতে বড় দরপতনে সাত হাজার ৩০০ পয়েন্ট পেরোনো ডিএসইএক্স সূচক ৭ হাজার ১৪০ দশমিক ৫০ পয়েন্টে নেমেছে। এ বাজারে এদিন ১ দশমিক শুন্য ৭ শতাংশ শেয়ারের পতন শতাংশের হিসাবে গত আড়াই মাসের মধ্যে সবচেয়ে বেশি।

এর আগে ডিএসই এর এই সূচক এর চেয়ে বেশি কমেছিল চলতি বছরের ২৭ জুন। সেদিন সূচক কমেছিল ১ দশমিক ৬৪ শতাংশ।

এদিন বেশিরভাগ শেয়ারের দাম কমলেও এ বাজারে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় ২ দশমিক ৭৯ শতাংশ বা ৫৬ কোটি ৮৭ লাখ টাকা বেড়ে ২ হাজার ৯৭ কোটি ৪১ লাখ টাকা হয়েছে। আগের কর্মদিবসে শেয়ার লেনদেন হয়েছিল ২ হাজার ৪০ কোটি ৫৩ লাখ টাকা।

মঙ্গলবার ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৭৬টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিটের মধ্যে দর বেড়েছে ৫২টির এবং কমেছে ৩০০টির। অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪টির দর। শতকরা হিসাবে ৮০ শতাংশ কোম্পানির শেয়ারের দাম কমেছে।      

ঢাকার অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ২২ দশমিক ৬১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ৫৫৬ দশমিক ২২ পয়েন্টে।

ডিএস৩০ সূচক ২৩ দশমিক ৪৬ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ২ হাজার ৬১১ দশমিক ৬৯ পয়েন্টে।

লেনদেনের শীর্ষ ১০টি কোম্পানি

লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, বেক্সিমকো লিমিটেড, বেক্সিমকো ফার্মা, পিটিএল, ওয়ালটন, ব্রিটিশ আমেরিকান টোবাকো, লাফার্জ হোলসিম, সাইফ পাওয়ার, আইপিডিসি ও ইসলামিক ফাইন্যান্স।

দাম বাড়ার তালিকায় শীর্ষ ১০টি কোম্পানি

মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্স, সোনালী পেপার, ইউনিয়ন ক্যাপিটাল, মেট্রো স্পিনিং, ন্যাশনাল হাউজিং, দেশ গার্মেন্টস, ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স, আইসিবি, কেডিএস এক্সেসরিজ ও আইপিডিসি ।

সবচেয়ে বেশি দর হারানো ১০টি কোম্পানি

তমিজউদ্দিন টেক্সটাইল, অলটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ, পেপার প্রসেসিং, জুট স্পিনার্স, বাংলাদেশ মুনুসপুল পেপার, এএমসিএল (প্রাণ), ফার্মা এইড, লিন্ডে বাংলাদেশ, এপেক্স ট্যানারি ও বিডি ল্যাম্পস।

এদিন সিএসইতে ৩১৭টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড কেনাবেচা হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৬০টির, কমেছে ২২৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩০টির দর।

সূচক কমলেও এ বাজারে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় দশমিক ৮৮ শতাংশ বা ৫৯ লাখ টাকা বেড়েছে।

মোট ৬৮ কোটি ৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিন ছিল ৬৭ কোটি ৪৩ লাখ টাকা।