সপ্তাহের শুরুতে সূচক বাড়লেও লেনদেনে পতন

মহামারী ও লকডাউনের কারণে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের একটি ব্রোকারেস হাউজে বৃহস্পতিবার শেয়ার কেনাবেচায় পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীরা। ছবি: মাহমুদ জামান অভি
সপ্তাহের প্রথম দিন রোববার দেশের দুই পুঁজিবাজারে সূচক বাড়লেও লেনদেন কমেছে।

দিন শেষে প্রধান পুঁজিবাজার ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিন থেকে ২৫ দশমিক শূন্য ৩ পয়েন্ট বা দশমিক ৩৪ শতাংশ বেড়ে ৭ হাজার ৩৬৭ দশমিক ৯৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

গত সপ্তাহে এ বাজারের প্রধান এ সূচক বেড়েছে ১৪ পয়েন্ট।

অপরদিকে দেশের দ্বিতীয় পুঁজিবাজার সিএসইর প্রধান সূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ৭৪ দশমিক ৬৯ পয়েন্ট। দিন শেষে এর অবস্থান ছিল ২১ হাজার ৫১৬ দশমিক ৯৯ পয়েন্টে।

এদিন ঢাকার বাজারে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় ২১ দশমিক ৪০ শতাংশ বা ৫৩৪ কোটি ৩৩ লাখ টাকা কমেছে।

মোট ১ হাজার ৯৬২ কোটি ৮৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়, যা আগের কর্মদিবসে ছিল ২ হাজার ৪৯৭ কোটি ২১ লাখ টাকা।

রোববার এ বাজারে ৩৩ শতাংশ কোম্পানির শেয়ারের দাম কমেছে। লেনদেন হওয়া ৩৭৬টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিটের মধ্যে দর বেড়েছে ২৪০টির এবং কমেছে ১২৪টির। অপরিবর্তিত রয়েছে ১২টির দর।

ঢাকার অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক  দশমিক ৭৪ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১ হাজার ৫৯৬ দশমিক ৫৩ পয়েন্টে।

ডিএস৩০ সূচক ১ দশমিক ৬১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ২ হাজার ৭৬৫ দশমিক ৭৮ পয়েন্টে।

লেনদেনের শীর্ষ ১০টি কোম্পানি

লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ,  আইএফআইসি ব্যাংক, পাওয়ার গ্রিড, বেক্সিমকো লিঃ, অরিয়ন ফার্মা, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, ফার ইস্ট নিটিং, জিপিএইচ ইস্পাত, বিএটিবিসি ও লংকাবাংলা ফাইন্যান্স।

দাম বাড়ার শীর্ষ ১০টি কোম্পানি

ফার ইস্ট নিটিং, মেট্রো স্পিনিং, শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ, ফাইন ফুডস, ইবিএল ফার্স্ট মিঃ ফাঃ, এফবিএফআইএফ, এম্বি ফার্মা, এএমসিএল (প্রাণ), প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল ও পিএইচপি ফার্স্ট মিঃ ফাঃ।

সবচেয়ে বেশি দর হারানো ১০টি কোম্পানি

সোনালী পেপার, ইউনিক হোটেল, আইসিবি ইসলামি ব্যাংক, সিলভা ফার্মা, কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজ, আনোয়ার গ্যালভানাইজিং, ডেসকো, ড্যাফোডিল কম্পিউটারর্স, এএফসি এগ্রো ও প্রভাতী ইন্স্যুরেন্স।  

এদিন চট্টগ্রামের পুঁজিবাজারেও সূচক বাড়লেও লেনদেন কমেছে। 

সিএসইতে ৩১৪টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট কেনাবেচা হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৮৯টির, কমেছে ১০৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৯টির দর।

এ বাজারে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় ২৩ দশমিক ৫৮ শতাংশ বা ২৫ কোটি ২৭ লাখ টাকা কমেছে। এদিন মোট ৮১ কোটি ৮৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিন ছিল ১০৭ কোটি ১৫ লাখ টাকা।