টুইটার ছাড়লেন ডরসি, নতুন প্রধান পারাগ আগরাওয়াল

ছবি: রয়টার্স, টুইটার
টুইটারের প্রধান নির্বাহীর পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির সহ-প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক ডরসি। মাইক্রোব্লগিং সাইটটির কাণ্ডারির ভূমিকায় এসেছেন এতোদিনের প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তার পদে থাকা পারাগ আগরাওয়াল।

গুগলে সুন্দার পিচাই ও মাইক্রোসফটে সাত্যিয়া নাদেলার পর তৃতীয় শীর্ষ প্রতিষ্ঠান হিসেবে নেতৃত্বে একজন ভারতীয় বংশদ্ভুতকে আনলো টুইটার।

২০০৬ সালে বিজ স্টোন, ইভান উইলিয়ামস এবং নোয়া গ্লাসের সঙ্গে মিলে টুইটার প্রতিষ্ঠা করেন জ্যাক ডরসি। তারপর থেকেই টুইটারের প্রধান নির্বাহীর দায়িত্বে ছিলেন তিনি। এর মধ্যে লেনদেন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান স্কয়ার তৈরি করেন ডরসি, প্রতিষ্ঠান প্রধানের দায়িত্ব পালন করছিলেন সেখানেও।

এক বিবৃতিতে ডরসি লিখেছেন, “অবশেষে আমার চলে যাওয়ার সময় এসেছে।” টুইটার এখন “এগিয়ে যেতে প্রস্তুত,” বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

পারাগ আগরাওয়ালের উপর “গভীর” বিশ্বাস রয়েছে বলেও জানিয়েছেন টুইটারের এ সহ-প্রতিষ্ঠাতা।

নতুন প্রধান প্রসঙ্গে ডরসি লিখেছেন, “তিনি আমাকে দক্ষতা, মন ও আত্মার মাধ্যমে কৃতজ্ঞতায় আবদ্ধ করেছেন। এখন তার সময় এসেছে নেতৃত্ব দেওয়ার।”

বিবিসি’র প্রতিবেদন বলছে, আগরাওয়াল টুইটারে যোগ দেন ২০১১ সালে। পরে ২০১৭ সালে প্রতিষ্ঠানটির প্রযুক্তি প্রধানের দায়িত্ব পান।

রোববার হঠাৎ করেই ডরসি টুইট করেন, “আমি টুইটারকে ভালোবাসি।”

অন্যদিকে, প্রাতিষ্ঠানিক বিবৃতির বাইরে পৃথক এক বার্তায় তিনি লিখেছেন, “কেউ শুনেছে কি না নিশ্চিত নই, আমি কিন্তু টুইটার থেকে পদত্যাগ করেছি।” তিনি আরও জানান, চলতি মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পর বোর্ডও ছাড়বেন তিনি।

জ্যাক ডরসির টুইটার ছাড়ার খবরটি প্রথমে অজ্ঞাতনামা সূত্রের বরাত দিয়ে জানায় সিএনবিসি। পরে রয়টার্সও একই খবর প্রকাশ করে।

ডরসির টুইটার ছাড়ার খবরে শেয়ার দরে কিছুটা প্রভাব পড়তে শুরু করেছিল। এর ফলাফল হিসেবে প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার কেনাবেচাও সাময়িকভাবে বন্ধও রাখা হয়েছিল। পরে তা আবার চালু করে দেওয়া হয়।

কর্মীদেরকে পাঠানো এক ইমেইলে ডরসি লিখেছেন, “কোনো প্রতিষ্ঠানের “প্রতিষ্ঠাতার নেতৃত্বে” থাকার গুরুত্বের ব্যাপারে অনেক কিছুই শোনা যায়। কিন্তু চূড়ান্তভাবে আমি মনে করি এটি অনেক সীমাবদ্ধতা তৈরি করে এবং ব্যর্থতার বিন্দুর দিকে  নিয়ে যায়।”            

“কেন থাকছেন না বা চেয়ারপার্সন হচ্ছি না? আমার বিশ্বাস, এটি পারাগকে তার নেতৃত্বদানের জন্য যে অবকাশের প্রয়োজন, তা করে দেবে।” – যোগ করেছেন ডরসি।

আরও পড়ুন