জর্জ ফ্লয়েড হত্যার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ নিউ জিল্যান্ডে

যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের নিপীড়নে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুকে ঘিরে ছড়িয়ে পড়া ক্ষোভের আগুনের মধ্যে এবার নিউ জিল্যান্ডেও বিক্ষোভ করেছে হাজার হাজার মানুষ।

সোমবার অন্তত চারটি জায়গায় বড় ধরনের বিক্ষোভ হয়েছে। অকল্যান্ডে বিক্ষোভকারীরা রাস্তায় এক হাটুগেড়ে বসে প্রতিবাদ জানিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের মিনিয়াপোলিসে গত সপ্তাহে জর্জ ফ্লয়েডকে পুলিশ হাতকড়া পরিয়ে গলায় হাটু দিয়ে চেপে ধরে রাখার পরই শ্বাসরোধ হয়ে তার মৃত্যু হয়েছিল। ওই ঘটনার মোবাইল ফুটেজ সামনে আসতেই জ্বলে ওঠা আগুন এখন ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্রের গণ্ডি পেরিয়ে।

নিউ জিল্যান্ডে অকল্যান্ডের কেন্দ্রস্থলে একটি চত্বর থেকে হাজার হাজার মানুষ যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস অভিমুখে মিছিল করেছে। ‘ভাল মানুষ হও, দয়াবান হও’ লেখা প্ল্যাকার্ড হাতে বিক্ষোভ করে তারা।

স্যোশাল মিডিয়া পোস্টে অকল্যান্ডের আমেরিকান কনস্যুলেটের বাইরে ‘ফ্লয়েডের জন্য ন্যাবিচার চাই’, ‘এর পরের শিকার কি আমরা?’ লেখা পোস্টার নিয়ে বিক্ষোভ করতে দেখা গেছে।

এর আগে রোববার ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদ হয়েছে যুক্তরাজ্যের লন্ডন, জার্মানির বার্লিন এবং কানাডার টোরান্টো শহরেও। এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার নিউ জিল্যান্ডে এ বিক্ষোভ হল। নেদারল্যান্ডস, অস্ট্রেলিয়াতেও মানুষ বিক্ষোভ কর্মসূচি নিচ্ছে।

নিউজিল্যান্ডের রাজধানী ওয়েলিংটনে ১শ’রও বেশি মানুষ ‘কৃষ্ণাঙ্গ জীবনের মূল্য আছে’ স্নোগানে পার্লামেন্ট ভবন থেকে পায়ে হেঁটে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস অভিমুখে মিছিল করেছে। সোমবার সন্ধ্যায় সেখানে একটি মোমবাতি মিছিলেরও কর্মসূচি নিয়েছেন আয়োজকরা।

ওদিকে, অস্ট্রেলিয়ায় তাসমান সী জুড়ে বিক্ষোভকারীরা মঙ্গলবার ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ কর্মসূচি নিয়েছে। এ প্রতিবাদ কর্মসূচির মুখে যুক্তরাষ্ট্রের কনস্যুলেট মঙ্গলবার আগেভাগেই সিডনিতে তাদের কার্যালয় বন্ধের সিদ্ধান্ত জানিয়েছে।