নাইজেরিয়ার উত্তরাঞ্চলে অপহৃত ৩ শতাধিক স্কুলছাত্রীর খোঁজে অভিযান

ছবি: বিবিসি থেকে নেওয়া
নাইজেরিয়ার উত্তরাঞ্চলে একটি স্কুলে হামলা চালিয়ে বন্দুকধারীরা তিন শতাধিক ছাত্রীকে অপহরণ করার পর তাদের খোঁজে অভিযান চলছে।

শুক্রবার গভীর রাত পর্যন্ত পুলিশ ও সেনাবাহিনী অপহৃত ছাত্রীদের সন্ধান বের করতে পারেনি বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

জামফারা রাজ্যের গভর্নর এরই মধ্যে তার রাজ্যের সব বোর্ডিং স্কুল বন্ধ ঘোষণা করেছেন। এ নিয়ে দুই সপ্তাহেরও কম সময়ের মধ্যে নাইজেরিয়ার উত্তরপশ্চিমাঞ্চলে দুটো একই ধরনের অপহরণের ঘটনা ঘটল।

সাম্প্রতিক সময়ে দেশটির উত্তরপশ্চিমাঞ্চল বিভিন্ন জঙ্গি সংগঠন ও অপরাধী চক্রের অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছে।

জামফারা পুলিশ জানিয়েছে, তারা সেনাবাহিনীকে সঙ্গে নিয়ে জাঙ্গেবে শহরের সরকারি বালিকা বিজ্ঞান উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৩১৭ ছাত্রীকে অপহরণ করা ‘দস্যুদের’ খোঁজে অভিযান শুরু করেছে।

“তাদেরকে পাশের একটি জ্ঙ্গলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে তথ্য পাওয়া গেছে। আমরা সাবধানতার সঙ্গে তাদের খুঁজে বের করার চেষ্টা করছি,” সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই বলেছেন পুলিশ কমিশনার আবুতু ইয়ারো।

শুক্রবার পর্যন্ত এ স্কুলছাত্রীদের অপহরণের দায় কেউ স্বীকার করেনি।

পশ্চিম আফ্রিকার দেশগুলোতে প্রথম বোকো হারাম ও ইসলামিক স্টেটের মতো জঙ্গিগোষ্ঠীগুলো প্রথস স্কুল শিক্ষার্থীদের অপহরণ শুরু করলেও এখন উদ্দেশ্য স্পষ্ট নয় এমন অনেক সশস্ত্র গোষ্ঠীও এই কৌশল বেছে নিয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নাইজেরিয়ার একাধিক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, অপহৃত শিশুদের ফিরে পেতে সরকার মোটা অংকের মুক্তিপণ দিতে থাকায় এ ধরনের ঘটনা বেড়ে গেছে এবং নাইজেরিয়ার উত্তরের শহরগুলোতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির চরম অবনতি ঘটেছে।

দেশটির সরকার অবশ্য সবসময়ই মুক্তিপণ দেওয়ার কথা অস্বীকার করে আসছে। শুক্রবার নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুহাম্মাদু বুহারি বলেছেন, তার সরকার অপহরণকারীদের চাপের মুখে নত হবে না।