‘গাছ বেয়ে মাদ্রাসায় ঢুকে ধর্ষণের চেষ্টা’, তরুণ কারাগারে

বাড়ির পাশের ‘গাছ বেয়ে মাদ্রাসার দোতলায় উঠে’ এক ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে এক তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

রোববার ভোরে তাকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়; পরে আদালতে হাজির করা হলে তাকে কারাগারে পাঠানো হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে।

শনিরবার দুপুরে গুরুদাসপুর উপজেলায় এই ঘটনা ঘটে বলে ওই ছাত্রীর বাবা মামলায় অভিযোগ করেন।

গ্রেপ্তার সবুজ সরকার (২৩) একই এলাকার শহিদুল ইসলামের ছেলে।

গুরুদাসপুর থানায় দায়ের করা মামলায় অভিযোগ করা হয়, ১২ বছর বয়সী ওই ছাত্রী বাড়ির পাশের একটি মসজিদের একই ভবনে স্থাপিত হাফেজিয়া মাদ্রাসায় লেখাপড়া করে। দীর্ঘদিন ধরে সবুজ ওই ছাত্রীকে উত্যক্ত করে আসছিল।

শনিবার দুপুরে মসজিদ সংলগ্ন একটি গাছ বেয়ে সবুজ দোতলায় উঠে ওই ছাত্রীকে জড়িয়ে ধরে এবং ধর্ষণের চেষ্টা করে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।

এই সময় ওই ছাত্রীর ডাকচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে সবুজ পালিয়ে যায় বলে অভিযোগে বলা হয়।

ওই ছাত্রীর বাবা বলেন, তিনি অন্ধ হাফেজ। তার মেয়েটি সাত পারার হাফেজ। বখাটে সবুজ তার মেয়েকে বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। বার বার নিষেধ করেও লাভ হয়নি।

গুরুদাসপুর থানার ওসি মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, নির্যাতনের শিকার ছাত্রীর বাবার দায়ের করা মামলায় রোববার ভোরে সবুজকে গ্রেপ্তার করা হয়। রোববার দুপুরে সবুজকে আদালতের মাধ্যমে নাটোর জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।