কুষ্টিয়ায় পদ্মায় নিখোঁজ ২ কলেজছাত্রের মরদেহ উদ্ধার

নিখোঁজ কলেজ ছাত্র সামিরুল।
কুষ্টিয়ায় পদ্মা নদীতে ফুটবল তুলতে নেমে নিখোঁজ দুই কলেজছাত্রের মরদেহ ছয় ঘণ্টা পর উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় দৌলতপুর উপজেলার ফিলিপনগর আবেদের ঘাট এলাকায় তাদের লাশ পাওয়া যায় বলে ভেড়ামারা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন অফিসার প্রবীর কুমার দেবনাথ জানান।

বেলা ১টার দিকে আবেদের ঘাট সংলগ্ন এলাকায় পদ্মা নদীতে নেমে নিখোঁজ হন এই দুই ছাত্র।

এরা হলেন ফিলিপনগর কবিরাজপাড়া গ্রামের বাসিন্দা বাবুল কবিরাজের ছেলে ফিলিপনগর মরিচা (পিএম) ডিগ্রি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র ইউসুফ আলী (১৯) ও একই কলেজর একাদশ শ্রেণির ছাত্র কুমির উদ্দিনের ছেলে সামিরুল ইসলাম সম্রাট (১৮)।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ইউসুফ ও সামিরুল কয়েকজন বন্ধুর সঙ্গে পদ্মার চরে ফুটবল খেলছিলেন। খেলার সময় ফুটবল নদীতে পড়লে

ইউসুফ ও সামিরুল বলটি তুলতে নদীতে নামেন। তখন তীব্র স্রোতে তারা তলিয়ে যান।

খবর পেয়ে এলাকার লোকজন নৌকা নিয়ে তাদের উদ্ধারে চেষ্টা চালিয়ে সন্ধান পাননি।

কুষ্টিয়া ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সহকারী পরিচালক রতন নাথ বলেন, কুষ্টিয়া ফায়ার সার্ভিসে ডুবুরি দল না থাকায় খুলনা থেকে ডুবুরি দল এসে বিকাল সাড়ে ৪টায় উদ্ধার অভিযান শুরু করে। সন্ধ্যা ৭টায় তাদের লাশ উদ্ধার হয়।