শাল্লায় পুরনো ভবন ভাঙার সময় পিলার চাপায় শ্রমিক নিহত

সুনামগঞ্জের শাল্লায় একটি বিদ্যালয়ের পুরনো পাকা ভবন ভাঙার সময় পিলারের নিচে পড়ে এক নির্মাণ শ্রমিক মারা গেছেন; আহত হয়েছেন একজন।

উপজেলার আনন্দপুর শাহ আরেফিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বৃহস্পতিবার এই ঘটনা ঘটে।

নিহত লাকু মিয়া (৩৫) সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার দাইপুর গ্রামের বাসিন্দা।

এই ঘটনায় আহত শ্রমিক আতর আলীকে দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

আনন্দপুর গ্রামের বাসিন্দা ইউপি সদস্য সুব্রত সরকার বলেন, “সকালে আমি স্কুলের পাশে একটি দোকানে বসা ছিলাম। এ সময় হঠাৎ এক নারীর চিৎকার শুনে দেখি পাকা পিলারের নিচে স্কুল ভাঙার কাজে নিয়োজিত দুই শ্রমিক চাপা পড়েছেন।”

তাৎক্ষণিক পিলার অপসারণ করে তাদের দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়; পথেই লাকু মিয়া মারা যান বলে তিনি জানান।

আহত আতর আলীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

ভবনটি ভাঙার কাজের ঠিকাদার ইদু মিয়া বলেন, “পুরাতন ভবনটি ভেঙে নতুন ভবন নির্মাণের জন্য আমরা শ্রমিক লাগিয়ে কাজটি করছিলাম। কাজ প্রায় শেষ। দুপুরে অসাবধানবশত দুটি পিলারের নিচে আমার দুই জন শ্রমিক চাপা পড়েন।”

তিনি বলেন, নিহত শ্রমিকের লাশ হাসপাতালে আছে। প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলে লাশ স্বজনদের হাতে হস্তান্তরের চেষ্টা চলছে।

শাল্লা থানার ওসি মো. নূর আলম বলেন, “স্কুল ভবন ভাঙার সময় দুর্ঘটনায় একজন নিহত ও আহত হয়েছেন বলে আমরা জানতে পেরেছি। এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”