নোয়াখালীতে শিশু সাংবাদিকতায় হ্যালোর কর্মশালা

নোয়াখালীতে হ্যালো ডট বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম আয়োজিত শিশুদের সাংবাদিকতা বিষয়ে দুই দিনব্যাপী কর্মশালা শেষ হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নোয়াখালী সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ সালমা আকতার।

বিশেষ অতিথি ছিলেন ওই কলেজের ইংরেজি বিভাগের প্রধান মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির এবং গণিত বিভাগের প্রধান কাজী মোহাম্মদ ওয়াহিদ উল্লাহ।

হ্যালো ডট বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের এই আয়োজনে সহযোগিতা করেছে জাতিসংঘ শিশু তহবিল - ইউনিসেফ।  

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যক্ষ সালমা আকতার বলেন, “আমাদের শিশুদের সৃজনশীলতা বিকাশের জন্য একটা ফ্ল্যাটফর্ম দরকার। হ্যালো তোমাদের জন্য তেমনি একটা ফ্ল্যাটফর্ম। হ্যালোর সাথে যুক্ত হয়ে তোমরা সাংবাদিকতার পাশাপাশি বিভিন্ন বিষয়ে তোমাদের মেধার বিকাশ ঘটাবে বলে আমার বিশ্বাস। আমাদের প্রত্যাশা আমাদের ছেলেমেয়েরা শিল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতি, রাজনীতি, অর্থনীতি সব কিছু নিয়ে ভাববে এবং সব বিষয়ে তারা দক্ষ হয়ে উঠবে।”

মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির শিশু সাংবাদিকদের উদ্দেশে বলেন, “তোমাদের মাঝে আমরা আমাদের সুন্দর আগামী দেখতে পাচ্ছি। সমাজের সব অঙ্গনে তোমরা নেতৃত্ব দেবে। তোমাদের সৎ ও সাহসী সাংবাদিকতা অধিকারহারা শিশুদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় ভূমিকা রাখবে বলে বলে আমার বিশ্বাস।”

মোহাম্মদ কাজী ওয়াহিদ উল্লাহ বলেন, “ইউনিসেফ এবং হ্যালো তোমাদেরকে যেভাবে তৈরি করে তুলছে এর মধ্য দিয়ে তোমরা দেশ, সমাজকে তুলে ধরতে পারবে।”

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন হ্যালোর ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী সম্পাদক সুলাইমান নিলয়, জেলা সমন্বয়ক আবু নাছের মঞ্জু, চন্দ্রবিন্দু সাহা, মনীষা দাস ও সফি উদ্দিন।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ প্রতিদিন ও নিউজ ২৪ এর জেলা প্রতিনিধি আকবর হোসেন সোহাগ, চ্যানেল ২৪ এর জেলা প্রতিনিধি সুমন ভৌমিক, ডিবিসি নিউজের জেলা প্রতিনিধি আসাদুজ্জামান কাজল।

এর আগে সমাপনী দিন শিশুদের সংবাদ তৈরির বিষয়বস্তু ও মা পর্যায়ের অভিজ্ঞতা বিনিময় করেন দৈনিক প্রথম আলোর স্টাফ রিপোর্টর মাহবুবুর রহমান।

দুইদিনব্যাপী কর্মশালায় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সাংস্কৃতিক সংগঠন থেকে ২০ জন শিশু অংশগ্রহণ করে। অংশগ্রহণকারীদের শিশু অধিকার, সংবাদ লেখার কৌশল, জেলায় শিশু অধিকার বিষয়ক সংবাদ, ভিডিও সংবাদ এবং মোবাইল ফোনে ভিডিও সংবাদ তৈরির ধারণা দেওয়া হয়।

কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী শিশু সাংবাদিকরা হলেন আশিকা ফাইরুজ্জামান চৌধুরী তোফা, আফনান কাশপিয়া তুষ্টুনী, তাবাসসুম আকবর, ফারহিন আহমেদ আদিতা, প্রীতিলতা ভৌমিক, রাহিতাতুল মায়িদা, মনিষা দাস, চন্দ্রবিন্দু সাহা, ত্রিধা মজুমদার, ওয়াজিহা আলম, রোদেলা ফেরদৌস কথা, তাসকিন তাবাসসুম আফরিদা, সফি উদ্দিন, মো: তানিম হোসেন, সরোয়ার মাহি, মাহিম তাজওয়ার অর্পণ, রিফাত আহাম্মেদ আইমান, ইব্রাহীম ইবান, মাহাদী হাসান ও রাবেয়া বিনতে হাসান।

সবশেষে অংশগ্রহণকারী শিশু সাংবাদিকদে হাতে সনদপত্র তুলে দেন অধ্যক্ষ সালমা আকতার।